Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮

অগাষ্ট ৫, ২০১৭
গাইবান্ধা, সংবাদ সম্মেলন
No Comment

শাহ আলম সরকার সাজু, গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় মমিরুল ইসলাম নামের এক যুবককে জেল হাজতে প্রেরণের প্রতিবাদ ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মমিরুলের স্ত্রী নূরী বেগম। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টায় প্রেসক্লাব গোবিন্দগঞ্জে এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মমিরুলের এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও নিকটতম আত্মীয়স্বজন আঃ জব্বার, জাফুরুল ইসলাম ও শাহারুল ইসলাম। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নূরী বেগম জানান, গত ২৬ আগস্ট প্রতিবেশি আসাদুল খান, রাজিব খান, বাবলু খান ও বুলু মিয়া সহ কয়েকজন ব্যক্তি ছাগল, হাঁস মুরগী নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জেরে তাদের বসতবাড়ীতে এসে মমিরুল ও তার স্ত্রী নূরী বেগমকে মারধর করে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে আসবাবপত্র ভাংচুর করে। সেই সাথে স্বর্ণের মালা ছিনিয়ে নেয়। তিনি জানান স্বর্ণ ও ঘরের আসবাবপত্র সহ প্রায় ৭৩ হাজার ৫শ’ টাকা ক্ষতি সাধন করে তারা। ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে বিবাদী আসাদুলের স্ত্রী ববিতা বেগমকে দিয়ে একটি ধর্ষনের মিথ্যা মামলা দায়ের করে। মামলা নং ৫৬ তাং-২৮-৭-১৭ ইং।
বক্তব্যে নূরী বেগম মিথ্যা ধর্ষণ মামলাটি প্রত্যাহার সহ বিবাদীগণের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান।
সংবাদ সম্মেলনে নূরী বেগম আরো জানান, বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা সংবাদ প্রকাশ করলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আশুতোষ তার বাড়ীতে গিয়ে মামলাটি নিয়ে বাড়াবাড়ী করলে মাদক ও অস্ত্র মামলায় ফাঁসানো হবে বলে হুমকী প্রদান করে। অপর দিকে, বিবাদীগণ নূরী বেগমের পরিবারের লোকজনকে বিভিন্নভাবে জীবন নাশের হুমকী প্রদান করে যাচ্ছে।
এ মামলার বাদী ববিতা বেগমকে ধর্ষনের আলামত সংগ্রহে পুলিশ গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে মেডিকেল করতে নিয়ে যান। সেখানে বাদী নিজেই অঙ্গীকারনামায় এই মর্মে স্বাক্ষর প্রদান করে যে, সে মেডিকেল করতে রাজিনা।
এদিকে, নূরী বেগম ও মমিরুলের উপর আক্রমনের ঘটনায় থানায় এজাহার দাখিল করে নূরী বেগম। এজাহারের ১০ দিন পেরিয়ে গেলেও মামলার রেকর্ড করেনি পুলিশ। এঘটনায় নূরী বেগমসহ পরিবারের লোকজন নিরাপত্তাহীনতায় দিনযাপন করছে।