Pages

Categories

Search

আজ- রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

“২০১৯ সালের পূর্বে কোন নির্বাচন হবে না ” …..স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

nasim_pic_021

আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি: নির্দলীয়, নিরপেক্ষ সরকারকে ডেথ ইস্যু উল্লেখ করে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সংবিধান মেনে ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনে বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। ২০১৯ সালের পূর্বে কোনো নির্বাচন হবে না। শনিবার দুপুরে নওগাঁর পত্মীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৈকালিক চিকিৎসাসেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বিএনপি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের যে, দাবি করছে, তার কোনো ভিত্তি নেই। ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে তাঁদের আসতেই হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।

সিভিল সার্জন একেএম মোজাহার হোসেনের সভাপতিত্বে বৈকালিক চিকিৎসাসেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সংসদের হুইপ ও নওগাঁ-২ (পত্মীতলা-ধামইরহাট) আসনের সাংসদ শহীদুজ্জামান সরকার, নওগাঁ-৩ (মহাদেবপুর-বদলগাছী) আসনের সাংসদ ছলিম উদ্দিন তরফদার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী এম এ মুহিদ, রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক আশিষ কুমার সাহা, জেলা প্রশাসক আমিনুর রহমান, পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক প্রমুখ।

মন্ত্রী আরো বলেন, সরকারি হাসপাতালগুলো গরীবের চিকিৎসাকেন্দ্র। সরকার নির্ধারিত স্বাস্থ্যসেবা বাইরেও যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, সেটি যুগান্তকারী। এটি যেন কথার কথা হয়ে না থাকে। দায়িত্বরত চিকিৎসক ও সেবিকাদের তিনি আরও দায়িত্বশীল হওয়ার জন্য আহবান জানান। এর আগে উপজেলার নজিপুর পৌরসভায় ২২ কোটি ৯৬ লাখ ব্যয়ে মেডিকেল অ্যাসিসটেন্ট ট্রেনিং স্কুল ভবন কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সেখানে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসলে দেশের উন্নয়ন হয়। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া ক্ষমতায় আসলে দেশে সন্ত্রাসের জন্ম হয়। দেশকে রসাতলের দিকে ধাবিত করে। আর শেখ হাসিনা সন্ত্রাস ও জঙ্গী দমন করে এবং দেশের উন্নয়ন করে।

নওগাঁ সিভিল সার্জন ডা: একেএম মোজাহার হোসেন বলেন, ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বৈকালিক স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রমের পর দেশে প্রথম নওগাঁর মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৈকালিক চিকিৎসাসেবার এই কার্যক্রম চালু করা হয়। পরবর্তীতে জেলার বদলগাছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও একই কার্যক্রম শুরু হয়। বৈকালিক এই চিকিৎসাসেবার ফলে চিকিৎসা বঞ্চিত এলাকার অসংখ্য মানুষ চিকিৎসার সেবার আওতায় আসে।

তিনি আরো জানান, তরুণ চিকিৎসকদের নিয়ে এবং বস্ত্র ও পাঠ মন্ত্রী ইমাজউদ্দিন প্রামানিক এমপির প্রধান পৃষ্ঠপোষকতায় ২০১৫ সালের ২৬ মার্চ মান্দা উপজেলা হাসপাতালে আনুষ্ঠানিকভাবে এই কার্যক্রম শুরু করা হয়। এখন পর্যন্ত ওই হাসপাতাল এলাকায় চিকিৎসা বঞ্চিত ১৯ হাজার ১ জন রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪ হাজার ৮৫৩ জন পুরুষ, ১০ হাজার ২৫৫ জন নারী ও ৪ হাজার ১৫ জন শিশু রয়েছে। একইভাবে ২০১৫ সালের ১৬ আগষ্ট বৈকালিক চিকিৎসসেবা চালু হয় বদলগাছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এ পর্যন্ত সেখানে চিকিৎসাসেবা নিয়েছেন ৩ হাজার ৯৮৬ জন। এর মধ্যে ১ হাজার ৯৭ জন পুরুষ, ১ হাজার ৫৮৪ জন নারী ও ১ হাজার ৩০৫ জন শিশু রয়েছে। তিনি আরো বলেন, সরকারী পৃষ্টপোষকতা ও সহযোগিতা পেলে জেলার অপর ৮টি উপজেলায় একই কার্যক্রম শুরু করা হবে।