Pages

Categories

Search

আজ- সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

১১ মাস পর ঘরে ফিরছেন কাদের সিদ্দিকী

নভেম্বর ২৭, ২০১৫
রাজনীতি
No Comment
(ফাইল ছবি)

(ফাইল ছবি)

শান্তির দাবিতে দীর্ঘ ১১ মাস রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় অবস্থান কর্মসূচি পালন শেষে নিজ ঘরে ফিরছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় রাজধানীর মতিঝিলস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্খীদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন তিনি। এরপর এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অবস্থান কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করবেন বলে দলের একাধিক শীর্ষ নেতা এ কথা জানিয়েছেন।

চলতি বছরের শুরুতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সারাদেশে হরতাল-অবরোধের সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে পেট্রোলবোমা হামলা ও পুলিশের গুলিতে সাধারণ মানুষ হত্যার ঘটনা ঘটে। হরতাল-অবরোধের নামে এসব হত্যাকাণ্ড বন্ধে সংলাপের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি এবং অবরোধ প্রত্যাহারের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়ে ২৮ জানুয়ারি থেকে মতিঝিলে দলীয় কার্যালয় সংলগ্ন ফুটপাতে মাদুর পেতে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন কাদের সিদ্দিকী। ৬২ দিন মতিঝিলের ফুটপাতে অবস্থান করলেও সরকার ও বিএনপি এতে কোন সাড়া দেয়নি। এরপর পরবর্তী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শান্তির দাবিতে দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তিনি।

কাদের সিদ্দিকী দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে গাজীপুর, টাঙ্গাইল, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী ও ময়মনসিংহসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় তাবু টাঙিয়ে অবস্থান কর্মসূচি এবং জনসভা করেন। এর মধ্যে ময়মনসিংহ জেলার প্রতিটি উপজেলাতে তিনি এ কর্মসূচি পালন করেন।

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সূত্রে জানা গেছে, দলের নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্খীরা মনে করছেন কাদের সিদ্দিকী দীর্ঘদিন পরিবারের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন জীবন-যাপন করছেন। তার শারীরিক ও পারিবারিক জীবনের অবস্থা বিবেচনায় এখন ঘরে ফেরা উচিত। এজন্য তারা ১ ডিসেম্বর মতিঝিলে সভা ডেকেছেন। ওই সভায় তারা কাদের সিদ্দিকীকে কর্মসূচী সমাপ্ত ঘোষণা করে ঘরে ফেরার অনুরোধ জানাবেন।

প্রসঙ্গত: কাদের সিদ্দিকী ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি মোহাম্মদপুরের ২০/৩০ বাবর রোডের বাসভবন থেকে বের হয়ে মতিঝিলে অবস্থান শুরু করেন।

এ বিষয়ে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বলেন, ‘বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী নিজের সুখ-শান্তি ও পারিবারিক জীবনকে বিসর্জন দিয়ে রাস্তায় রাস্তায় শান্তির দাবি জানাচ্ছেন। দীর্ঘদিন তিনি পারিবারিক জীবন থেকে বিচ্ছিন্ন। এ অবস্থায় আমরা ১ ডিসেম্বর মতিঝিলের পার্টি অফিসে আলোচনাসভা ডেকেছি। সেখানে আমাদের মতামতের ভিত্তিতে বঙ্গবীর তার চলমান অবস্থান কর্মসূচির বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরবেন।’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী বলেন, ‘‘আমরা দলের নেতাকর্মীরা অনেক দিন থেকেই বঙ্গবীরকে ঘরে ফেরার অনুরোধ জানিয়ে এসেছিলাম। দুই নেত্রীর বোধদয় যেহেতু হয়নি, আর হওয়ারও সম্ভাবনা নেই। তাই এই পরিশ্রম তাদের কাছে ‘অরণ্যে রোদন’। কিন্ত দেশের মানুষের কাছে কাদের সিদ্দিকীর এই কর্মসূচি কতটা গ্রহণযোগ্য হয়েছে তার প্রমাণ কালিহাতীর উপ-নির্বাচনের জনসভা। পরাজয়ের ভয়ে সেখানে তো সরকার নির্বাচনই বন্ধ করে দিয়েছে।’’

ইকবাল সিদ্দিকী আরও বলেন, ‘আমরা বলেছি, ঘরে থেকেও দেশের জন্য কাজ করা যায়। আশা করি এই প্রেক্ষাপটে বঙ্গবীর ১ ডিসেম্বর দলের অনুরোধে ঘরে ফিরে যাবেন।’