Pages

Categories

Search

আজ- সোমবার ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮

হকার- চাঁদাবাজদের হামলায় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের দুই নিরাপত্তা কর্মী আহত


গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের জয়দেবপুর চৌরাস্তা এলাকার ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর বসা হকার সড়াতে গিয়ে সিটির দুই নিরাপত্তা কর্মী হকার ও চাঁদাবাজদের হামলায় আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হেলাল মিয়া ও আশরাফুল আলমকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় চৌরাস্তা এলাকায় ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাপাসিয়া বাসস্ট্যান্ডে এঘটনা ঘটে।


সুত্র জানায়, জনচলাচল নির্বিঘœ করতে সড়ক-মহাসড়ক ও ফুটপাতে বসা দোকান ও হকার উচ্ছেদের উদ্যোগ নেয় সিটি কর্পোরেশন। পুলিশ, র‌্যাব ও সিটি কর্পোরেশনের নিরাপত্তা কর্মীদের সহায়তায় দুই দিন আগে মেয়র আলহাজ্ব মো: জাহাঙ্গীর আলম চৌরাস্তা এলাকার অবৈধ হকার ও দোকান উচ্ছেদ করেন। উচ্ছেদ হওয়া দোকান ও হকাররা আবার যেন বসতে না পারে সেই জন্য সারাদিন সড়কে টহল দেন। চলতি মাসে সিটি কর্পোরেশনে সম্পৃক্ত করা জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশনের ট্রাফিক সহাযোগীরা এই কাজ তদারকি করছেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় ট্রাফিক সহাযোগী সমন্বয়কারী আশরাফুল আলমের নের্তৃত্বে ১০ জনের একটি দল ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর বসা হকার উচ্ছেদ করতে যায়। এসময় হকার, চাঁদাবাজ ও তাদের পৃষ্টপোষক সহ দেড় শতাধিক লোক হামলা করে। এতে হেলাল মিয়া ও আশরাফুল আলম গুরুতর আহত হন। শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগ সুত্র জানায়, হেলাল মিয়ার মাথায় দশটি সিলি ও আশরাফুল আলমের মাথায় দু’টি সিলি লেগেছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হ্েচছ। হাসপাতালে ভর্তি আহত ট্রাফিক সহাযোগী সমন্বয়কারী আশরাফুল আলম জানান, উচ্ছেদ হওয়া দোকান যাতে বসতে না পারে সেই জন্য আমরা কাজ করছিলাম। হঠাৎ করেই দেড় শতাধিক মানুষ আমাদের ওপর হামলা করে। এসময় হেলাল মিয়ার মাথা ফেটে রক্তাক্ত হয়ে রাস্তায় পরে যায়।