Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮

সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে গাজীপুরের এসপি হারুনের প্রত্যাহার দাবি বিএনপির


গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের স্বার্থে গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন -অর-রশিদকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। আজ রোববার সকালে ২০ দলীয় জোটের টঙ্গীর নির্বাচনী অফিসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়ক ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ দাবি জানান ।
পুলিশ সুপারকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত আবেদন করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- ধানের শীষ প্রতীকে ২০ দলীয় জোট মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও সাবেক এমপি খায়রুল কবির খোকন, গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন, সাধারণ সম্পাদক কাজী ছাইয়েদুল আলম বাবুল, কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মাজহারুল আলম।


খন্দকার মোশারফ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, মহানগর জামায়াতের আমির অধ্যক্ষ এস.এম সানাউল্লাহ নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে বিএনপির প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকারকে সমর্থন দেয়ায় সানাউল্লাহসহ জামায়াতের ৪৫ নেতাকর্মীকে অন্যায়ভাবে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তিনি অবিলম্বে তাদের মুক্তি দিয়ে নির্বাচনে ‘ লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নিশ্চিত করার দাবি জানান।
এরপর ড. খন্দকার মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে নগরীর শিমুলতলী, হাড়িনাল ও ধীরাশ্রম, সামন্তপুর এলাকায় নির্বাচনী প্রচার কাজ চালান। তাঁর সাথে ছিলেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়কারী কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মিলন, সদস্যসচিব কাজী সাইয়্যেদুল আলম বাবুল, মিডিয়া সেলের প্রধান কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মাজহারল আলম, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল ও ২০দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও পেশাজীবী নেতা অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন নগরীর মীরের বাজার এলাকায় প্রচার কাজ করেন। বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির গণশিক্ষা বিশয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া নগরীর কাউলতিয়া ও সালনা এলাকায় প্রচার কাজ করেন্। তাঁর সাথে ছিলেন শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোটের অতিরিক্ত মহাসচিব জাকির হোসেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক তোফাজ্জল হোসেন বাদল, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, পেশাজীবী গাজীপুর জেলার সভাপতি অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, শিক্ষক নেতা জাভেদ হোসেন, পারভেজ চৌধুরী, জাসাস নেত্রী আফরোজা আক্তার পারুল। বিএনপি চেয়ার পারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন ভূঁইয়া শিশির, ইকরামূল হক নগরীর ৪৫ নং ওয়ার্ডে প্রচার কাজ করেন। জেলা বিএনপি কার্যালয়ে অবস্থান করে মিডিয় সেলের সাথে সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আব্দুস সালাম।