Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮

সাপাহার সীমান্তে বিএসএফ আবারো এক বাংলাদেশীকে পিটিয়ে ও গুলি করে হত্যা করলো : বিজিবির প্রতিবাদ

জুন ২৫, ২০১৫
আন্তর্জাতিক, নওগাঁ
No Comment

মোঃ শহিদুল ইসলাম, নওগাঁ: বৃহস্পতিবার ভোরে নওগাঁর সাপাহার উপজেলার হাপানিয়া সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষি বাহিনী বিএসএফ আবারো জহুরুল ইসলাম (৩৮) নামে এক বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে। বিএসএফের ছোড়া গুলিতে আহত হয়েছে বকুল হোসেন (২২) নামে আরো এক যুবক। নিহত জহুরুল পার্শ্ববর্তী পোরশা উপজেলার দূয়ারপাল পশ্চিমপাড়া গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে এবং আহত বকুল হোসেন মফিজ উদ্দিনের ছেলে।
জহুরুলের পারিবারিক সূত্র জানায়, বুধবার দিবাগত রাতে জহুরুল ও বকুল অন্য একদল গরু ব্যবসায়ীর সাথে গরু কেনার জন্য ভারতে যায়। ভোর সাড়ে ৩ টায় তারা গরু কিনে বাংলাদেশে ফেরার সময় ভারতের টেক্কাপাড়া ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করতে করতে ধাওয়া করে। গুলিতে আহত বকুল অন্যদের সাথে পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও জহুরুলকে বিএসএফ ধরে নিয়ে যায়।
পরে বিএসএফ সদস্যরা জহুরুলকে বেদম মারপিট করে আবারো গুলি করে জখম ও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সীমান্তের ২৩২ নং মেইন পিলারের কাছে ফেলে রেখে যায়। আহত জহুরুল হামাগুড়ি দিয়ে কোন রকমে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।
জানতে পেরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মূমুর্ষ অবস্থায় রাজশাহী মোডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। পথেই তার মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে।
জানতে চাইলে হাপানিয়া বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার নায়ক সুবেদার মোফাজ্জল হোসেন ঘটনার সত্যতা শ্বীকার করেন। পত্মীতলার ১৪ বিজিবি’র কমান্ডিং অফিসার লে: কর্ণেল রফিকুল হাসান জানান, বিজিবির পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে বিএসএফ’র কাছে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১১ জুন উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্তে শহিদুল ইসলাম নামে অপর এক বাংলাদেশী গরু ব্যাবসায়ীকে জবাই করে হত্যা করেছিল বিএসএফ। এর রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো এক যুবককে হত্যা করায় এলাকায় আতংক ও ক্ষোভ  ছড়িয়ে পড়েছে।