Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সাপাহারে বিল কৃষ্ণসদা জলমহল নিয়ে ইজারাদার ও গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত-৫

নভেম্বর ৩০, ২০১৬
অনিয়ম, অপরাধ, আইন- আদালত, নওগাঁ
No Comment

photosapahar130112016
বাবুল আকতার, সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার উপজেলার সীমান্তবর্তী কৃষ্ণসদা গ্রামের পাশে অবস্থিত পোরশা উপজেলাধীন বিল কৃষ্ণসদা খাস জলমহলের দখল নেয়া কে কেন্দ্র করে বুধবার দুপুরে ইজারাদার ও কৃষ্ণসদা গ্রামবাসীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় সৃষ্ট সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারী ও পুরুষ সহ কম পক্ষে ৫জন গুরুত্বর আহত হয়েছে।
সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে জানাগেছে, কৃষ্ণসদা গ্রামের পাশে অবস্থিত পোরশা উপজেলাধীন মৌজা বিল কৃষ্ণসদা নামক প্রায় ১৫ একর জলা বিশিষ্ট সরকারী খাস খতিয়ানভুক্ত জলমহল যুগযুগ ধরে স্থানীয় কৃষ্ণসদা গ্রামের প্রায় ৩শ পরিবার ভোগদখল করে আসছিল। গত বছর একই উপজেলারধীন বিরামপুর গ্রামের রবু শেখ এর পুত্র শামসুল আলম পোরশা উপজেলা ভূমী অফিস হতে ৩ বছর মেয়াদে তা ইজারা গ্রহন করেন। ইজারা গ্রহনের পর থেকে স্থানীয কৃষ্ণসদা গ্রামের লোকজনের সাথে বিলের দখল প্রতিষ্ঠাকে কেন্দ্র করে ইজারাদারের বিবাদ শুরু হয়। কৃষ্ণসদা গ্রামের লোকজন জানান প্রতি বছর খরা মৌসুমে ওই বিলের জমিতে তারা বোরো ধানের বীজতলা ,আলু পিয়াজ,গম, সরিষা চাষাবাদ করে ভোগদখল করে আসছিল। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ ঘটনার দিন গত ৩০ নভেম্বর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে প্রভাবশালী ইজারাদার শামসুল আলম একটি বিশেষ মহলের ছত্র ছায়ায় থানা পুলিশের সহযোগীতায় লাঠিয়াল বাহীনি নিযুক্ত করে ওই বিল দখলের প্রচেষ্টা চালায়। এ সময় ইজারাদারের লোকজন ওই বিলের জমিতে চাষকৃত প্রায় ৫০ মন বোরো ধানের বীজতলা , বিপুল পরিমানের আলু,সরিষার ফসল বিণষ্ট করে ফেলে। ইজারাদারের লোকজনের তান্ডব দেখে কৃষ্ণসদা গ্রামের নারী পুরুষ তাদের বাধা প্রদান করে। এক পর্যায় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ বাধে। এতে বিলের ইজারাদার শামসুল আলম(৪২), মিজানুর রহমান(১৮) প্রতিপক্ষের রুমালী বেওয়া(৪০) ইসমতারা খাতুন(১৪) ও ফাইমা বেগম(৩৫) আহত হয়। আহতদের সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত পোরশা ও সাপাহার থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এ বিষয়ে থানায় কোন মামলা মোকর্দমা বা আদালতের কোন নিষেধাজ্ঞা জারী ছিল কী না তা জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাপাহার থানার এস আই নাদিম আলী জানান ওসি সাহেবের নির্দেশে তিনি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে শান্তি শংৃঙ্খলা বজায় রাখার চেষ্টা করেছেন। সংশ্লিষ্ট ইজারাদার শামসুল আলম জানান তিনি সরকারী ওই বিল সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী ইজারা গ্রহন করেছেন অখচ প্রতিপক্ষের লোকজন বে আইনী ভাবে তা ভোগদখলে নিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। এ দিকে সীমান্তবর্তী কৃষ্ণসদা গ্রামের পাশে অবস্থিত পোরশা উপজেলাধীন বিল কৃষ্ণসদা খাস জলমহলের দখল নেয়া কে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় বর্তমানে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।