Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শ্রীপুরে বনের জায়গা দখল করে বসতবাড়ি র্নিমাণ

শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের টেপিরবাড়ি এলাকায় বনের জায়গা দখল করে বসতবাড়ি নির্মাণ করার মহোৎসব চলছে। টাকা হলেই মিলছে বনের জায়গা দেখার কেউ নেই, প্রতি রাতেই নির্মাণ হচ্ছে নতুন নতুন বাড়ি।
সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, টেপিরবাড়ি গ্রীনর্স্মাট কারখানার সামনে কমর উদ্দিনের ছেলে এসএম কাজল রানার নেতৃত্বে আশ পাশের কারখানার বহিরাগতদের সাথে সর্ম্পক করে টাকার বিনিময়ে বন বিভাগের জায়গা দখল করে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। গ্রীনর্স্মাট কারখানার সামনে নোয়াখালী জেলার সুমন মিয়ার কাছে টেপিরবাড়ি মৌজার এসএ ৫৩ দাগের জমি থেকে ২ কাঠা জমি স্বল্প মূল্যে ক্রয় করেছেন। সুমন মিয়া জমি ক্রয় করে চারদিকে চালাচ্ছেন সীমানা নির্মানের কাজ। আর ভিতরে ইতিপূবেই দুটি কক্ষ নির্মাণ কাজ শেষ করে ফেলেছেন। আরো ১২টি রুম করার জন্য রাতারাতি কাজ শুরু করছেন। সমুন মিয়া বনের জমি ক্রয় করে তার ভাই সৌদি প্রবাসি আরো ১ কাঠা জমি কাজল রানা কাছ থেকে ক্রয় করেছেন। শুধু সুমন মিয়া নয় এ রকম অনেকের কাছে বনের জায়গা বিক্রি করে তাদের কে বসতবাড়ি নির্মাণ করার দায়িত্ব ও নেন কাজল রানা।
টেপিরবাড়ি এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন,বন বিভাগের অনেক জমি এই এলাকার কিছু দালাল অল্প মূল্যে বিক্রি করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। বন বিভাগের কিছু অসাধু ব্যক্তিদের সাথে আতাত করে চলছে বনের জমি দখল। সুমন মিয়া বলেন,অনেকেই এই এলাকায় আমার মত বনের জায়গা দখল করে অনেক বাড়ি ঘর নির্মাণ করেছেন। আমি এসএম কাজল রানার কাছ থেকে জমি ক্রয় করেছি,বাড়িঘর নির্মাণ থেকে শুরু করে সব দায়িত্ব তিনি নিয়েছেন। বনের লোকজনের সাথে যোগাযোগ করে আমি বসতবাড়ি নির্মাণ করতেছি।
এসএম কাজল রানা নিজেকে কৃষকলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে বলেন,সাতখামাইর বিট অফিসারে সাথে যোগাযোগ করে বসতবাড়ি নির্মাণ করছি। তবে সাতখামাইর বিট অফিসার নুরুল ইসলাম বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।
শ্রীপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক কে একাধিকবার তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে মোবাইল রিসিভ করেননি।