Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শ্রীপুরে ঘুষ দাবি করায় বিদ্যুৎকর্মীদের সঙ্গে গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ২০

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : র্শ্রীপুরে বকেয়া বিলের অতিরিক্ত টাকা দাবি করাকে কেন্দ্র করে পল্লী বিদ্যুৎকর্মীদের সঙ্গে গ্রামবাসীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয় এক ইউপি সদস্যসহ ৪০/৪৫ জনকে আসামি করে মামলা করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ।

মাওনা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আমিনুল ইসলাম জানান, বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে বকেয়া বিলের অতিরিক্ত টাকা দাবি করে পল্লী বিদ্যুৎকর্মীরা এতে গ্রামবাসীর সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয় পল্লী বিদ্যুৎকর্মীদের।

পরে স্থানীয় চকপাড়া এলাকায় অন্যদের সঙ্গে সাইফুল ইসলামেরও বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়।

“এ সময় সাইফুল ইসলাম বিল পরিশোধের কাগজ দেখালেও তাকে পুনঃসংযোগ না দিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে টেনে হিঁচড়ে তাদের গাড়িতে তোলার চেষ্টা করেন পল্লী বিদ্যুৎকর্মীরা। খবর পেয়ে স্থানীয় মসজিদের মুসল্লিরা বের হয়ে বাধা দিতে গেলে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।”

সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে তিনি নিজেও আহত হন। সবশেষে বিদ্যুৎকর্মীরা তাদের ভুলের জন্য গ্রামের গণ্যমান্য লোকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে চলে যান।

অপর দিকে পল্লী বিদ্যুতের মাওনা জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার কামাল পাশা জানান, ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর আওতায় মাওনা জোনাল অফিসের একটি টিম বকেয়া বিল আদায়ের লক্ষ্যে শুক্রবার সকালে শ্রীপুর উপজেলার মাওনা চকপাড়া মেডিকেল মোড় এলাকায় যায়। ওই এলাকার সাইফুল ইসলাম, সফিকুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম ও রিপনসহ অন্ততঃ ৬০ জন গ্রাহক দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুতের মোটা অংকের বকেয়া বিলের টাকা পরিশোধ করছে না। পল্লী বিদ্যুতের কর্মীরা সেখানে গিয়ে ওই গ্রাহকদেরকে বিদ্যুত ব্যবহারের বকেয়া বিল এদিন পরিশোধের জন্য নির্দেশ দেয়, বকেয়া পরিশোধ করা না হলে বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ঘোষণা দেয়।

এসময় বকেয়া বিল পরিশোধের আশ্বাস দিয়ে অপেক্ষা করার কথা বলে স্থানীয় কয়েক গ্রাহক পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কৌশলে অবরুদ্ধ করে এবং নানা টালবাহানা করতে থাকে। দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর দুপুর পর্যন্ত বকেয়া বিল পরিশোধ না করায় কিছু বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে বিদ্যুত কর্মীরা।

এসময় সাইফুল ইসলাম, সফিকুল ইসলাম ও ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলামসহ কয়েক গ্রাহক বকেয়া পরিশোধ ছাড়াই পুনরায় সংযোগ দেয়ার দাবী জানায়। বিদ্যুত কর্মীরা এতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাদেরকে স্থানীয়রা এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং প্রায় আড়াই ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও জনপ্রতিনিধির সহযোগিতায় অবরুদ্ধ বিদ্যুত কর্মীদের বিকেলে উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়দের হামলায় পল্লীবিদ্যুতের মাওনা জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার হুমায়ুন কবির ও হুমায়ুন কবির, এনফোর্সমেন্ট কো-অর্ডিনেটর ওয়াদুদুর রহমান, সহকারী প্রকৌশলী অর্জুন কুমার, পরিদর্শক সুমন, ফখরুল, লাইন টেকনেশিয়ান তাইজ উদ্দিন, লাইনম্যান আসাদ, প্রবাল, শামীম ও রুবেলসহ অন্ততঃ ২০জন কর্মকর্তা-কর্মচারী আহত হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

পল্লী বিদ্যুতের মাওনা জোনাল অফিসের এজিএম তাজুল ইসলাম বলেন, পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবরুদ্ধ করে রাখার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে পুনরায় হামলা চালানো হয়।

এছাড়াও সাইফুল ইসলামের বিদ্যুত পরিশোধ করার কথা সঠিক নয় বলেও দাবি করেন তিনি।