Pages

Categories

Search

আজ- রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮

রংপুরে জাপানী নাগরিক হোশি কুনিও হত্যা জেএমবির ৫ সদস্যের ফাঁসি

ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭
অপরাধ, আইন- আদালত, ফাঁসি, বিচার, রংপুর, শীর্ষ সংবাদ
No Comment


হারুন উর রশিদ সোহেল রংপুর প্রতিনিধি: বহুল আলোচিত ক্লুবিহীন চাঞ্চল্যকর জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও হত্যা মামলার পলাতক এক আসামিসহ জেএমবি’র পাঁচজনকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এ মামলা থেকে আরেক জেএমবি সদস্যকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়। রায় ঘোষণার পর আসামিদের রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করা হয়। মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় এ রায় দেন রংপুরের বিশেষ জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার। সকাল নয়টায় কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে নেয়া হয় আসামদিরে। এর ত্রিশ মিনিটর পর এজলাসে আসেন বিচারক। এরপর আসামিদের উপস্থিতিতে রায় পড়া শুরু করেন। দীর্ঘ সময় রায় পড়া শেষে এ রায় দেন বিচারক।
ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্তরা আসামিরা হলেন, জেএমবির পীরগাছার আঞ্চলিক কমান্ডার পীরগাছা উপজেলার পশুয়া টাঙ্গাইলপাড়ার মাসুদ রানা ওরফে মামুন ওরফে মন্ত্রী (২১), একই এলাকার জেএমবির সদস্য ইছাহাক আলী (২৫), বগুড়ার গাবতলী এলাকার জেএমবির সদস্য লিটন মিয়া ওরফে রফিক (২৩), গাইবান্ধার সাঘাটার হলদিয়ার চর এলাকার সাখাওয়াত হোসেন (৩২) ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পলাতক শিক্ষার্থী আহসান উল­াহ আনছারী। এছাড়া এই হত্যাকান্ডে সংশি­ষ্টতা প্রমাণিত না হওয়ায় আরেক আসামি পীরগাছার কালীগঞ্জ বাজারের জেএমবির সদস্য আবু সাঈদকে (২৮) বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।
ক্লুবিহীন এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত খুনিদের খুঁজে বের করে তদন্ত শেষে চার্জশিট দিতে ১১ মাস সময় নেয় পুলিশ। কিন্তু মাত্র সাত মাসেই বিচার কার্যক্রম শেষ করে এ রায় দিয়েছেন আদালত। আর এটি নব্য জেএমবির জঙ্গিদের বিরুদ্ধে প্রথম রায়।
এদিকে রায় ঘোষণার পর সন্তুষ্টি প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী বিশেষ পিপি রথীশ চন্দ্র ভৌমিক (বাবুসোনা) জানান, নিরাপরাধ একজন বিদেশী নাগরিককে হত্যা করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি সরকার উৎখাতের যে প্রচেষ্টা করেছিলো জেএমবি। তা প্রমাণিত হয়েছে। এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, হোশি কুনিও হত্যা মামলায় জেএমবির আট জঙ্গির বিরুদ্ধে গত বছরের ৩ জুলাই দন্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগপত্র দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন কাউনিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী। ৭ জুলাই আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। ওই বছরের ১৩ অক্টোবর কাউনিয়া আমলি আদালত-২ এর বিচারক আরিফুল ইসলাম শুনানি শেষে মামলাটি রংপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে স্থানান্তর করেন। পরে ২৬ অক্টোবর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক হুমায়ুন কবীর বিচারের জন্য মামলাটি বিশেষ জজ আদালতে স্থানান্তর করেন। ১৫ নভেম্বর শুনানি শেষে সাত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিশেষ জজ আদালত। এ মামলার ৮ আসামীর মধ্যে আবু আনছারী পলাতক রয়েছেন এবং পঞ্চগড়ের নজরুল ইসলাম ওরফে বাইক হাসান গত বছরের ১ আগস্ট রাজশাহীতে এবং কুড়িগ্রামের সাদ্দাম হোসেন চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি ঢাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।
২০১৫ সালের ৩ অক্টোবর কাউনিয়া উপজেলার সারাই ইউনিয়নের আলুটারি গ্রামে ৬৬ বছর বয়সি জাপানি নাগরিক হোশি কুনিওকে গুলি করে হত্যা করে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র সদস্যরা।