Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ২২ নভেম্বর ২০১৮

মান্দায় সর্ব বৃহৎ চৌবাড়িয়া গরু হাট জমজমাট

অগাষ্ট ২৪, ২০১৬
নওগাঁ
No Comment

Naogaon_720123863

মোঃ হাবিবুর রহমান, মান্দা (নওগাঁ) সংবাদদাতা: নওগাঁর মান্দা উপজেলার সর্ব বৃহৎ চৌবাড়িয়া গরুর হাট গত বছরের চেয়ে এবারে কোরবানির গরুর হাট জমজমাট লেগেছে গরুর দাম বেশী বলে জানান ক্রেতা-বিক্রেতারা। আগের মত ভারত থেকে গরু আছসে না। তাই গরুর দাম বেশী বলে ব্যবসায়ীরা জানান। তাই এবার কোরবানির গরুর দাম বেশী। গত শুক্রবার উপজেলার চৌবাড়িয়া গরুর হাটে সরজমিনে ঘুরে ক্রেতা বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এই সব ত্যথ জানা গেছে। গত শুক্রবার চৌবাড়িয়া গরুর হাটে গিয়ে দেখা যায় ছোটবড় ষাড়, বলদ, বকনা, গাভী সহ প্রায় ৫০ হাজার গরু হাট এসেছে। উপজেলার খড়িবাড়ী গ্রামের খামারী মোঃ আকবর হক হাটে বিক্রয়ের জন্যে ৬টি ষাড় এনেছেন। গরু গুলির কি পরিমাণ মাংস হবে জানতে চাইলে স্থাণীয় কসাই বকুল আলী বলেন, প্রতিটি গরুর ৩ থেকে সাড়ে তিন মণ মাংস হবে। প্রতিটি গরুর দাম চাচ্ছেন ৫৫ থেকে ৬০ হাজার টাকা। অপর খামারী মোঃ আঃ সামাদ তিনি গরু বিক্রয়ের জন্য নিয়ে এসেছেন হাটে। তিনি জানান প্রতি বছর ৮ থেকে ১০টি করে ষাড় লালন পালন করেন। গত কোরবানী এক মাস পর একটি গরু ২৬ হাজার টাকায় কিনেেেছন অন্যান্য বছর গরু দাম কম ছিল। অপর খামারী আঃ হাই জানান, গরুর খাদ্যের প্রতিটি জিনিসের দাম বেশী। গত বছর মাংসের দাম ছিল ৩০০টাকা বর্তমান বিক্রয় হচ্ছে ৪৩০ টাকা। তিনি জানান সারা বছরে একটি গরুর পেছনে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা খরচ হয়। এই অবস্থায় প্রতিটি গরু গড়ে ৫৫ হাজার টাকায় বিক্রয় করতে না পারলে পোসাবে না। গত শুক্রবার গিয়ে চৌবাড়িয়া হাটে দেখা যায় প্রচুর পরিমানে গরু উঠেছে হাটে। চৌবাড়িয়া হাটে এক গরু ব্যবসায়ী বেলাল হোসেন বলেন গত বছর ৪০ হাজার টাকায় বিক্রয় হয়েছে সেই গরুর দাম এখন ৬০ থেকে ৬২ হাজার টাকা কিনতে হবে। ভারত থেকে গরু আসছে না গত বছর কোরবানী হাটে ২৮ থেকে ৩০ হাজার টাকায় যে গরু ক্রেতারা কিনেছেন সেই গরু ৪৫ থেকে ৫০ হাজার টাকায় কিনতে হবে বলে তিনি জানান। ঢাকার গরু ব্যবসায়ী হারেজ আলী জানান, কোরবানী ঈদের জন্য আমরা গরু নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছি। গত বছরের তুলনায় এবার প্রতিটি গরুর দাম ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকায় বেশী দিয়ে ক্রয় করতে হচ্ছে। জমে উঠেছে চৌবাড়িয়া গরু হাট রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে ক্রেতা এবং ব্যবসায়ীরা গরু ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে। উপজেলার চৌবাড়িয়া গরু হাটের সম্পর্কে মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন জানান, চৌবাড়িয়া গরু হাটে গরু ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। হাটের ইজারাদার মোঃ রাশেদুল নবী জানান গরু ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের জন্য সকল প্রকার নিরাপত্তার ব্যবস্থা প্রসাশনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে,এছাড়া সরকারী চাট অনুযায়ী ছাড়পত্র নেওয়া হচ্ছে।