Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মনোহরদীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত এক আহত তিন

ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০১৬
অপরাধ, আইন- আদালত, নরসিংদী
No Comment

111
মো. ইসমাইল হোসাইন খান ও রেজাউর রহমান রেজা, নরসিংদী থেকে: নরসিংদীর মনোহরদীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় এক কিশোরী নিহত এবং আরও তিন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটে সোমবার দুপুরে উপজেলার কাচিকাটা ইউনিয়নের উত্তর মাধুশাল গ্রামে। চিকিৎসাধীন অবস্থায়  রবিবার সন্ধায় আব্দুল হকের মেয়ে হাজেরা (১৮) মারা যায়। আহতরা হলেন, হাজেরার পিতা মো. আব্দুল হক, চাচা মো. ফজলুল হক এবং চাচাতো ভাই মো. আব্দুর রশিদ। এ ঘটনায় মনোহরদী থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ আবু বকর, তার স্ত্রী রানু বেগম এবং মরিয়ম বেগমকে আটক করেছে।
নিহতের পরিবার এবং থানা সূত্রে জানা যায়, উত্তর মাধুশাল গ্রামের শহিদুল্লাহ এবং আবুল কালামের পরিবারের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার দেন দরবার হলেও কোন সমাধান হয়নি। গত রবিবার দুপুরে আবুল কালাম, রফিক, আবু বকর ও এনামুলের নেতৃত্বে ৮/৯ জন লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শহিদুল্লাহর চারা বাগানে প্রবেশ করে রোপনকৃত চারা গাছ কেটে ফেলার সময় ফজলুল হক এসে বাধা দেয়। এ সময় তারা ফজলুল হককে মারপিট করতে থাকে। এ ঘটনা দেখে ফজলুল হকের পরিবারের অন্য সদস্যরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও দা এবং কুড়াল দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। আব্দুল হক এবং আব্দুর রশিদকে উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হলেও অবস্থা গুরুতর হওয়ায় দায়িত্বরত চিকিৎসক আহত হাজেরা এবং ফজলুল হককে উন্নত চিকিৎসার জন্য নরসিংদী জেলা হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। আহত হাজেরা প্রায় ৩০ ঘন্টা মৃত্যুর সাথে লড়াই করে গতকাল সোমবার সন্ধায় মারা যায়। ফজলুল হকের অবস্থাও আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন স্বজনরা।
মনোহরদী থানার ওসি এসএম আলমগীর হোসেন জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে এ পর্যন্ত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বাকী আসামীদেরকেও গ্রেফতারের লক্ষ্যে পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।