Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ভালুকায় ঘুর্নিঝড়ে ফাজিল মাদ্রাসার ভবন বিধ্বস্ত

এপ্রিল ২১, ২০১৮
প্রকৃতি, ময়মনসিংহ, শীর্ষ সংবাদ
No Comment

মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক, বিশেষ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ভালুকায় শনিবার (২১ এপ্রিল) সকালে বয়ে যাওয়া ঘুর্নিঝড়ে ঘরবাড়ী ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে।পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ডে অবস্থিত ভালুকা ফাজিল মাদ্রাসার ৬০ফুট লম্বা একটি ঘরের সম্পুর্ন চাল উড়িয়ে নিয়ে গেছে। মাদ্রাসাটিতে আলিম পরীক্ষা চলমান রয়েছে।

মাদ্রাসা অধ্যক্ষ আবুল কাশেম নুরী জানান বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়া ঘরটিতে জেডিসি ও দাখিল পরীক্ষা আসন বিন্যাস করলেও আলিম পরীক্ষার জন্য ব্যাবহৃত না হওয়ায় পরীক্ষার কোন ব্যাত্যয় ঘটেনি। এছাড়াও সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঘুর্নিঝড় প্রবাহিত হওয়ায় পরীক্ষার্থীরা তখনো কেন্দ্রে না তাদেরও কোন সমস্যা সৃষ্টি হয়নি।

অধ্যক্ষের মতে ক্ষতিগ্রস্ত মাদ্রাসাটি সম্পুর্ন মেরামত করতে প্রায় ১০লক্ষ টাকার প্রয়োজন হবে। দুপুরে বিধ্বস্ত মাদ্রাসা পরিদর্শন করেছেন ভালুকা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ গোলাম মোস্তফা। এ ছাড়াও প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ কামাল ঢাকা থেকে টেলিফোনে খোঁজ-খবর নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এ ছাড়াও অপর এক ঝড়ে উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের পাঁচগাও সানরাইজ উচ্চ বিদ্যালয় লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। বিদ্যালয়টির একটি ঘরের সম্পুর্ন এবং অপর আরো দু’টি ঘরের আংশিক চাল উড়ে যাওয়ায় পাঠদান কার্যক্রমে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। খোলা আকাশের নীচে ক্লাস চালানো ছাড়া কোন উপায় দেখছে না সংশ্লিষ্ঠরা। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ আঃ মতিন জানান, ঝড়ে ৬ষ্ট,৭ম শ্রেনী কক্ষের চাল সম্পুর্ন উড়ে গেছে।

এ ছাড়া ৮ম,৯ম শ্রেনী কক্ষ ও বারান্দার চাল আংশিক উড়ে যাওয়ায় ক্লাস চালানো কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার ক্লাস বন্ধ রাখতে হয়েছে। এখন খোলা আকাশের নীচে ক্লাস চালানো ছাড়া কোন উপায় নেই। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করে আর্থিক অনুদান চেয়ে একটি আবেদন করা হয়েছে। এ ছাড়াও দু’দিনের ঝড়ে এলাকার ঘরবাড়ী ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।