Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮

ভালুকায় ঈদ শেষে কাজে যোগদান করতে গিয়ে দেখে মিল ফটকে তালা

জুলাই ২, ২০১৭
অধিকার, ময়মনসিংহ
No Comment


মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক, বিশেষ প্রতিনিধি: ১০দিনের বেতন দিয়ে ঈদের আগে ছুটি দেয়া হয় এবং বলা হয় ঈদের পর রোববার এসে কাজে যোগদান করতে হবে। রোববার সকালে যথারিতি কাজে যোগদানের উদ্যেশ্যে মিলে আসার পর শ্রমিকরা দেখে মিলের প্রধান ফটকে তালা ঝুলে আছে।

শ্রমিকদের কোন কিছু না জানিয়ে মিল কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্তে তীব্র অসন্তোষ দেখা দেয় শ্রমিকদের মাঝে। তারা মিল গেটে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের চেষ্ঠা চালায়। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার সকালে উপজেলার হবিরবাড়ী এলাকার ওরিয়ন নিট টেক্সটাইল মিলে।

সুত্র জানায়, উল্লেখিত এলাকার ওরিয়ন নিট টেক্সটাইল মিলে।প্রায় আড়াইশ শ্রমিক কর্মরত রয়েছে। গত ২৩ জুন শুক্রবার সন্ধ্যায় এক মাসের বেতনের পরিবর্তে মাত্র ১০ দিনের বেতন দিয়ে শ্রমিকদের ঈদের ছুটি দেয়া হয়। এ সময় শ্রমিকদেরকে ঈদের পর রোববার যথারিতি কাজে যোগদানের জন্য বলে দেয়া হয়। রোববার সকালে পুর্বের স্বাভাবিক নিয়মে কর্মস্থলে আসে শ্রমিকরা। দেখে মিলের প্রধান ফটকে তালা ঝুঁলানো।

এ সময় শ্রমিকরা জানতে চাইলে গেটের দায়িত্বে থাকা লোকজন জানায়, প্রায় দু’কিলোমিটার অদূরে মাস্টার বাড়ি এলাকায় ইউনিট-১ এ কাজ করতে হবে। অন্যথায় তাদের চলে যেতে বলা হয়। এ ঘটনায় শ্রমিকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হলে তারা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মহাসড়কে গিয়ে অবস্থান নেয়। শ্রমিকদের মতে প্রায় তিনঘন্টা মহাসড়কে অবস্থানের পর স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ বাচ্চু ফ্যাক্টরির জিএম (এ্যাডমিন) ইমতিয়াজ আহমেদকে নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন এবং শ্রমিকদের সাথে কথা বলেন। এ সময় ফ্যাক্টরীর কিছু ভাড়াটিয়া বাহিনী নারী শ্রমিকসহ বেশ কিছু শ্রমিকদের উপর হামলা চালায় এবং কিল ঘুষি মারতে থাকে। এতে কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়। ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

দু’পক্ষের আলোচনায় কোন প্রকার সিদ্ধান্ত ছাড়াই ফ্যাক্টরীর জিএম মাইক্রো যোগে পালানোর চেষ্টা চালালে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা মাইক্রোবাসটি ঘেরাও করে বিভিন্ন দাবিতে বিক্ষোভ করতে থাকে। অবস্থা বেগতিক শ্রমিকরা বিক্ষোভরত অবস্থায় মাইক্রো ছেড়ে একটি মোটরসাইকেলে করে সটকে পড়ে মিলের জিএম। আবারো শুরু হয় মিলের ভাড়াটিয়া লোকজনের সাথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া।

এক পর্যায়ে ভাড়াটিয়া বাহিনী শ্রমিকদের উপর লাঠি নিয়ে ধাওয়া করে। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা উত্তেজিত অবস্থায় জিএম’র মাইক্রোবাসে ভাংচুর করে। এ বিষয়ে মিলের জিএম(এ্যাডমিন) ইমতিয়াজ আহমেদ স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, শ্রমিক আইনমেনেই তাদেরকে অন্যত্র শিফট করতে কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যদি তারা না যায়, তবে তাদের পাওনা মিটিয়ে দেয়া হবে। ভালুকা মডেল থানার ওসি মামুন অর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, মিল কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের নিয়ে বসে আলোচনা করে সমাধানের চেষ্টা চলছে। বর্তমানে মিল এলাকায় পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।