Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বেলাবতে সিএনজি চালক হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন

অক্টোবর ১০, ২০১৫
আইন- আদালত, নরসিংদী, হত্যা
No Comment

ফারুক আহম্মেদ, বেলাব(নরসিংদী) প্রতিনিধি : দীর্ঘ ৯ মাস পর উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের রহিমাকান্দি গ্রামের সিএনজি চালক আলকাছ মিয়া (৬০) হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হলেন বেলাব থানা এস আই ও অত্র তদন্ত কর্মকর্তা মো: শাহজাহান খান। নিহত ব্যক্তির একই সাকিনের মো: সোহেল মিয়া (২৫) কে গ্রেফতার করা হলে সে পুলিশ ও নরসিংদী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খালেদা ইয়াছমিন উর্মির আদালতে স্বেচ্ছায় এ হত্যাকান্ডে জড়িত বলে জবানবন্দী দিয়েছেন বলে অত্র মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন। তিনি আরও জানান এ হত্যাকান্ডের সাথে আরও ৪ জন জড়িত। সিএনজি ছিনতাই ছিল তাদের উদ্দেশ্য বলে জানা গেছে। জড়িতরা ঘটনার দিন গত ২৪/১২/১৪ ইং তারিখে রাত সাড়ে ৩ টায় ভৈরব থেকে বারৈচা আসার জন্য যাত্রীবেশে সিএনজিতে উঠে এবং ঢাকা সিলেট মহাসড়কে গাইকাটা খালের কাছে আসলে সিএনজি ছিনতাই চেষ্টাকালে তাদের চিনে ফেলায় সিএনজি চালক আলকাছ মিয়াকে হত্যা করে লাশ পানিতে কচুরিপানার নিচে লুকিয়ে সিএনজি নিয়ে পালিয়ে যায়। জড়িতদের গ্রেফতারের স্বার্থে নাম প্রকাশ করতে রাজি হয়নি পুলিশ।
ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, ঘটনার দিন নিহত ব্যক্তি সিএনজি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিরুদ্দেশ থাকে। অনেক খোঁজাখুঁজি করে ১৪ দিন পর এ বছরের ২ জানুয়ারী লাশ পেয়ে বেলাব থানায় নিহতের ছেলে নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে বেলাব থানায় অজ্ঞাতদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে (বেলাব থানা মামলা নং- ১(২০১৫ ইং)। বেলাব থানা এসআই মো: হারিছুল হক দীর্ঘ সাড়ে ৮ মাস মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা থাকলেও রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হলে সংশি­ষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বর্তমান তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো: শাহজাহান খানের উপর ন্যন্ত করা হলে রহস্য উদঘাটনে সক্ষম হন। তিনি আরও বলেন বাকী জড়িতদের গ্রেফতারের জোড় প্রচেষ্ট চলছে। তারা একটি সংঘবদ্ধ সিএনজি ছিনতাইকারী চক্র। পূর্বেও তারা অনুরূপ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং পাশ্ববর্তী থানাসমূহে তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।