Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮

বিক্রি হয়ে যাচ্ছে ইয়াহু

মে ১, ২০১৬
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
No Comment

yahoo-logoবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক:
কর্মী ছাঁটাই, বিভিন্ন শাখা বন্ধ ও প্রধান নির্বাহী পরিবর্তন করেও লোকসান ঠেকাতে পারছে না টেক জায়ান্ট ইয়াহু। শেষ পরিণতি হিসেবে মালিকানা হাতবদল হতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির। খবর রয়টার্সের।

রয়টার্স জানায়, ইতোমধ্যে ১০ ক্রেতার সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরি করেছে ইয়াহু। এসব ক্রেতার মধ্যে নিলামে যাঁরা সর্বোচ্চ দাম দেবেন, তাঁরাই হবেন ইয়াহুর মালিক।

ইয়াহুর সম্ভাব্য ক্রেতার মধ্যে রয়েছে টিপিজি ক্যাপিটাল এলপি, ওয়াইপি এলএলসি। ইয়াহুতে এখনো ১৫ শতাংশ মালিকানা রয়েছে চীনা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলিবাবা গ্রুপ হোল্ডিং লিমিটেডের।

মালিকানা পরিবর্তনের পর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে পরিবর্তন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যম এবিসি নিউজ।

এবিসি নিউজ জানায়, ইয়াহু বিক্রি হওয়ার পর এর বর্তমান প্রধান নির্বাহী মারিসা মেয়ার স্বপদে থাকবেন কি না, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

প্রসঙ্গত: ইয়াহু একটি বৃহৎ ইন্টারনেট ভিত্তিক বাণিজ্য প্রতিষ্ঠান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সানিভেল শহরে এর প্রধান কার্যালয় অবস্থিত। ডেভিড ফিলো ও জেরি ইয়াং ইয়াহু এর প্রতিষ্ঠাতা। ইয়াহু’র রয়েছে ওয়েবসাইট, সার্চইঞ্জিন, ইয়াহু ডিকশেনারী, ইয়াহু মেইল, ইয়াহু নিউজ, ইয়াহু গ্রুপ, ইয়াহু এন্সার, অ্যাডভার্টাইজমেন্ট, অনলাইন ম্যাপ, ইয়াহু ভিডিও, সোশ্যাল মিডিয়া সেবা ইত্যাদি। ইয়াহু যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বড় ওয়েবসাইট।

১৯৯৪ সালের জানুয়ারী মাসে ইয়াহু চালু হলেই ইনকর্পোরেটেড হয় ১৯৯৫ সালের ১ মার্চ। ২০০৯ সালের ১৩ জানুয়ারি ইয়াহু ক্যারল বার্টজকে নিয়োগ দেয় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং পরিচালনা বোর্ডের সদস্য হিসেবে। ২০১১ সালের ৬ সেপ্টেম্বর বার্টজকে প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে অপসারন করা হয় এবং টিম মর্সকে অস্থায়ীভাবে এ পদটি দেয়া হয়। ৪ই জানুয়ারি ২০১২ সালে পেপালের সাবেক প্রেসিডেন্ট স্কট থম্পসনকে নতুন প্রধান নির্বাহীর পদে নিযুক্ত করা হয়।

সংবাদ সংস্থাগুলো তথ্য অনুসারে ইয়াহুর নিয়মিত ব্যবহারকারী প্রায় ৭০০ মিলিয়ন। ইয়াহু দাবি করে “প্রতি মাসে প্রায় ৫কোটি মানুষ ৩০টি ভাষায় ইয়াহু ব্যবহার করে ।