Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বাঁশখালীতে ৩ মামলা, আসামি ৩ হাজার

DSCN3398-696x228ডেস্ক রিপোর্ট:
বাঁশখালীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ ও নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করেছে। তিনটি মামলায় আসামি করা হয়েছে অন্তত ৩ হাজার জনকে।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘সোমবারের সংঘর্ষে চারজন নিহতের ঘটনায় মর্তুজার আলী এবং আনোয়ারুল ইসলামের ভাই মাওলানা বশির আহমদ বাদি হয়ে বসত ভিটা ও কবরস্থান রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক ও বিএনপি নেতা লিয়াকত আলীসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১৪০০ থেকে ১৫০০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ ছাড়া নিহত জাকের আহমেদের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমও বাদি হয়ে অজ্ঞাত ১৫০০ থেকে ১৮০০ জনকে আসামি আরেকটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। একই ঘটনায় পুলিশের ওপর গুলি, কর্তব্য পালনে বাধা ও হামলার অভিযোগ ৫৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত সহস্রাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) বাহার মিয়া বাদী হয়ে অপর মামলাটি দায়ের করেন।

মামলা দায়ের করার পর পুরো এলাকা এখন পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে। এসব মামলায় এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। এলাকায় চরম আতংক বিরাজ করছে। তবে এলাকায় কোনো পুলিশও মোতায়েন করা হয়নি। নিহতদের লাশ এখনও পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি।

এদিকে এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন এ সংক্রান্ত আদেশ দেন।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. মোমিনুর রশিদকে আহ্বায়ক করে এক সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ‘এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পেয়েছি। ঘটনা পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। কমিটির নির্দিষ্ট কোনো সদস্য নেই।

উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার বিকেলে বাঁশখালীর গণ্ডামারা ইউনিয়নে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের পক্ষে-বিপক্ষের লোকজন ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে গুলিতে দুই ভাইসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ১১ পুলিশসহ অন্তত ১৯ জন।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন গণ্ডামারা ইউনিয়নের চরপাড়ার দুই ভাই মরতুজা আলী (৫৫) ও মো. আনোয়ারুল ইসলাম (৪৪), একই ইউনিয়নের রহমানিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা এলাকার বাসিন্দা জাকের আহমদ (৬০)। এ ছাড়া রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মো. জাকের হোসেন নামের আরেকজন মারা যান।

আহত ১৯ জনকে প্রথমে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তাঁদের মধ্যে গুরুতর আহত সাতজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।