Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বদলগাছী শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে ঈদ বাজার শপিংমলে ক্রেতাদের উপচে পরাভীর

জুন ২৩, ২০১৭
অর্থ বাণিজ্য, নওগাঁ
No Comment

আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি: পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে নওগাঁর বদলগাছীতে রমজানের শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে ঈদের বাজার। উপজেলা সদরের বিভিন্ন মার্কেটে শপিংমল থেকে শুরু করে ফুটপাতের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভির লক্ষ করা গেছে। সাধ আর সাধ্যের মধ্যে প্রিয়জনদের উপহার কিনতে ধনী গরীব, মধ্য বিত্তদের পাশা পাশি কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন নি¤œ শ্রেণীর খেটে খাওয়া মানুষও।
এবার দেশী পোষাকের পাশাপাশি ভারতীয় পোষাকের ছেয়ে গেছে বিভিন্ন মার্কেট শপিংমল বিপনি বিতানগুলোতে। উপজেলার বদলগাছী মুস্তফী শপিংকমপ্লেক্স-এ সাতরং ফ্যাশন, নিপাগার্মেন্টস, আবু বস্ত্র বিতান, পাবনা বস্ত্রালয়সহ কোলা বাজারে রাতুল ফ্যাশন হাউজ শাখা-১, রাতুল ফ্যাশন শাখা-২, নিউ দোয়েল ক্লথ ষ্টোর, মা-বস্ত্রালয় সিজান গার্মেন্টস, দ্বীপগঞ্জ মিলন গার্মেন্টস, কিরন বস্ত্রালয়, ক্রেতা বিক্রেতারা দিনভর কেনা বেচায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে এসব মার্কেটে মান সম্মত দেশীয় পোষাক সামগ্রী থাকলেও শিশু ও উঠতি ছেলে মেয়েরা ভারতীয় সিরিয়ালের পোশাকের প্রতি ঝুঁকে পড়েছেন। এবার ঈদ উল ফিতরের মেয়েদের জন্য আকর্ষনীয় পোষাকের মধ্যে রয়েছে। বাহুবলী-২, রাখি বন্ধন, পটল কুমার, বাজরাঙ্গি, ভাইজা, ফ্লোর টার্চ, লাসা, লংস্কাট, শট স্কার্ট সহ বিভিন্ন নামের থ্রিপিচ ও ফোরপিচ পোষাক। নজর করা দেশীয় পোশাকের মধ্যে রয়েছে টাঙ্গাইল শাড়ী, জামদানী, খদ্দর, মনীপুরী, রাজগুরু, বালুচুরী, জর্জেট শাড়ী ইত্যাদি। রাতুল ফ্যাশান হাউজের প্রধান শাখার পরিচালক কলি আক্তার বলেন এবার শুরুতেই কেনা বেচা তেমন ভাল না হলেও শেষ সময়ে জমে উঠেছে ঈদের বাজার, ক্রেতাদের রুচির সাথে তালমিলিয়ে আমরা সর্বদা সফলতার সাথে বিক্রি করছি বাহারী ডিজাইনের পোশাক। রাতুল ফ্যাশান হাউজের ২য় শাখার পরিচালক রুহুল হাসান বলেন আমরা এবার ঈরে নিত্য নতুন বাহারী ধরনের পোষাকের আমদানী করে ক্রেতাদের কাছে সুলভ মূল্যে বিক্রি করছি।
মা বস্ত্রালয় জুয়েল বলেন ঈদে এবার ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী মান সম্মত পোশাক বিক্রয় করছ তবে এবার ঈদে গত বছরের তুলনা কেনা অনেক বেশি হচ্ছে। মেয়েরে পোশাকের পাশাপাশি ছেলেদের পোশাকের চাহিদাও রয়েছে বেশ। ছেলেদের জন্য ফুল সার্ট, হাফ সার্ট, ট্রি সার্ট, জিন্স প্যান্ট, পাঞ্জাবী নানা সমাহার।
এছাড়া জুতার দোকানেও ভিড়ের কমতি নেই, নারীদের উপস্থিতি বেড়েছে দর্জির দোকানে, জুয়েলার্স ও কসমেটিকের দোকানগুলোতে গত বছরের তুলনায় এবার সব জিনিসের একটু দাম বেশি হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন নি¤œবিত্তরা। এই কারনেই এদের কেনা কাটার শেষ আশ্রয় স্থল হিসেবে বেছে নিছেন ফুটপাতের দোকানগুলো।