Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বদলগাছীতে ইউএনও অফিসে মারপিটের ঘটনায় মামলা গ্রেফতার ২

নভেম্বর ২৮, ২০১৭
অপরাধ, আইন- আদালত, নওগাঁ
No Comment

মোঃ এমদাদুল হক দুলু, বদলগাছী (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর বদলগাছীতে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে গত সোমবার ইউএনও অফিসে ভাংচুর এবং মারামারির ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর-ই-আজম ও সদস্য ছানাউল হক হিরোকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে। মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সিএ রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গ্রেফতার কৃত ২ জন সহ প্রায় আওয়ামীলীগ ও মহিলা যুবলীগের নওগাঁ জেলা সাধারণ সম্পাদক ফেন্সি চৌধুরী সহ আওয়াশীলীগের দু-গ্রæপের কয়েক জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ গ্রেফতার অভিযান শুরু করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানা পুলিশ ২ জনকে গ্রেফতার ও কয়েক জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে থানা থেকে ছেড়ে দিয়েছেন।
জানা যায়, উপজেলা সদরের লাবন্যপ্রভা কমিঊনিটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য গত সোমবার ২৭ নভেম্বর পরীক্ষার দিন ধার্য্য ছিল। এতে ১১ জন আবেদন করেন। নিয়োগ বোর্ডের ডিজির প্রতিনিধি নাসরিন বানু ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষাকর্মকর্তা ওয়াসিউর রহমান উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে অবস্থান করা কালে উক্ত পদে ৬ জন আবেদনকারী নিয়োগ পরিক্ষা স্থগিতের আবেদন নিয়ে বর্তমান সাংসদ গ্রæপ জেলা যুবমহিলালীগের সম্পাদক ফেন্সি চৌধুরী সহ কয়েকজন নেতা নেত্রী যায়। এমন সময় উপজেলা আওয়ামীলীগের অপর একটি গ্রæপ সাবেক সাংসদ ও বর্তমান বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও ওই বালিকা বিদ্যালয়ের সভাপতি আলহাজ্ব ড.আকরাম হোসেন চৌধুরীর লোকজন আওয়ামীলীগের সদর ইউপির সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ও সুবেল এর নেতৃত্বে কয়েকজন নেতা কর্মী ইউএনওর কার্যালয়ে গিয়ে দুই গ্রæপে মুখমুখি অবস্থান নেই। এক পর্যায় দুই গ্রæপের নেতা নেত্রীরা নিয়োগকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে ডিজির প্রতিনিধি ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তকে লাঞ্চিত করা সহ ইউএনও অফিসের বিভিন্ন জিনিসপত্র তছনছ করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন।
এ ঘটনার সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুম আলী বেগ সরকারী কাজে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। তিনি খবর পেয়ে রাতেই ফিরে আসেন এবং গতকাল মঙ্গলবার থানায় মামলা দায়ের করেন।
মামলায় আওয়ামীলীগের দু-গ্রæপের অন্যান্য আসামীরা হলেন, জেলা যুব মহিলালীগের সম্পাদক ফেন্সি চৌধুরী, উপজেলা যুব মহিলালীগের সভাপতি মমতাজ বেগম, এরশাদ, শিক্ষক আবু হুরাইড়া বাদশা ও নাজমুল হক। এ ছাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সদর ইউপির সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, গোলাম সাকলাইন সুবেল, যুবলীগের সহ-সভাপতি মুনিরুজ্জামান সাজু, রিংকু, সহিদুল,সুজন, হিরা ও জাহিদ সহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শাহিনুর আলম জানান, এ বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছ্ েআসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুম আলী বেগ জানান, ঘটনার দিন আমি অফিসে ছিলাম না। সরকারী কাজে ঢাকায় অবস্থান করছিলাম। খবর পেয়ে রাতেই ফিরে এসে বিস্থারিত ঘটনা জানার পর যারা অফিসে এসে অপৃতিকর ঘটনার সৃষ্টি করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ইতি মধ্যে থানা পুলিশ ২ জনকে গ্রেফতার করেছে।