Pages

Categories

Search

আজ- রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮

বদলগাছীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি রেজিষ্ট্রির প্রতিবাদ

অক্টোবর ১১, ২০১৭
অনিয়ম, নওগাঁ, প্রতিবাদ, সংবাদ সম্মেলন
No Comment


মোঃ এমদাদুল হক দুলু, বদলগাছী (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর বদলগাছীতে একটি জমির উপর আদালতের নিষেধাজ্ঞা স্থিস্তি অবস্থায় রাখার নিদের্শ অমান্য করে নওগাঁ জেলা প্রশাসক ও বদলগাছী সহকারী কমিশনার ভুমি (এসিল্যান্ড) খাস জমি দেখিয়ে সাব-রেজিষ্ট্রেটারকে রেজিষ্ট্রেরি করে দেওয়ার অভিযোগে বুধবার সকাল ১০ টায় বদলগাছী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কাদিবাড়ী গ্রামের মৃত-মফিজ উদ্দীনের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সেলিম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সেলিম জানান, উপজেলার জিধিরপুর মৌজার সাবেক এস,এ খতিয়ান নং-২০৭,সাবেক দাগ নং-৪৪ এর কাতে গত ০৯/১২/১৯৭৫ ইং সনে মৃত মশিতুল্যাহ কাজীর ওয়ারেশ গণের নিকট থেকে ১একর ২০ শতাংশ জমি ২৭২৫৫ নং দলিল কবলা মুলে মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ মালিকানা ও সত্ববান হয়ে উক্ত সম্পতিতে আম বাগান ও ফসলাদি চাষাবাদ করিয়া আসছে। তার মধ্যে পাকা রাস্তা সংলগ্ন ৭০ শতাংশ সম্পত্তি সরকার অধিগ্রহন করে টি,এন,টি অফিস স্থাপন করলে বাঁকি ৫০ শতাংশ সম্পত্তি মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ দখল ভুক্ত থাকেন। এর মধ্যে উক্ত সম্পত্তির পশ্চিমাংশে ঈদগাহ মাঠ করার জন্য ৩ শতাংশ সম্পত্তি মৌখিক ভাবে দান করেন। অবশিষ্ট ৪৭ শতাংশ সম্পত্তি আম বাগানের পাশা পাশি বিভিন্ন ফসলাদি উৎপাদন করে মফিজ উদ্ধীন আহম্মেদ দখলদার রয়েছেন। এর মধ্যে উক্ত সম্পত্তি “খ” তফসিল গেজেট ভুক্ত হলে মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ উক্ত সম্পত্তি অবমুক্তির জন্য নওগাঁ সহকারী জজ আদালতে ৩৬৪/২০১৩ মামলা আনায়ন করে। ইতি মধ্যে সরকার “খ” তফসিল বাতিল করিলে বিজ্ঞ আদালত উক্ত মামলটি গত ২৮/১০/২০১৩ ইং তারিখে এ্যাবেট করে দিয়ে যার যার নামীয় সম্পত্তি খাজনা খারিজ করে নেওয়ার আদেশ দেয়।তখন মফিজ উদ্দীনের পক্ষে তার বড় ছেলে এস,এম ইকবাল হোসেন সম্পত্তিটি খারিজ খতিয়ানের জন্য গত ১৩/০৭/২০১৫ ইং তারিখে বদলগাছী সহকারী কমিশনার(ভুমি) এর নিকট আবেদন করেন। যার মিস কেস নং-০৯। আবেদনের পর বিষয়টি নিয়ে কয়েকবার শুনানি অন্তে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সদর তওশিলদারকে নির্দেশ দিয়েছেন। এমন অবস্থায় উক্ত সম্পত্তিতে বিবাদী জেলা প্রশাসক নওগাঁ ও তার অধিনস্ত কর্মকর্তা কর্মচারীর মাধ্যমে সম্পত্তিটি দখলের চেষ্টা করলে সম্পত্তির মালিক ও দখলদার মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ উক্ত সম্মত্তির উপর চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জন্য বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। (মামলা নং-১৩০/২০১৩ ) যাহা উভয় পক্ষের শুনানি অন্তে বিজ্ঞ আদালত গত ১০/০৬/২০১৫ ইং তারিখে ওই সম্পত্তির উপর স্থিতিঅবস্থার আদেশ জারি করে। উক্ত সম্পত্তির উপর স্থিতিবস্থা অমান্য করে খাস খতিয়ানভুক্ত দেখিয়ে নওগাঁ জেলা প্রশাসক ড.আমিনুর রহমান গত ০৪/১২/২০১৬ ইং তারিখে ৫২৫৫ নং দলিল মুলে বদলগাছী সাব-রেজিষ্টারকে দির্ঘ্য মেয়াদী লিজ রেজিষ্ট্রেরি ডিড করে দেয়। যাহা বাতিল চেয়ে গত ০৪/০১/২০১৭ ইং তারিখে নওগাঁ সহকারী জজ আদালতে মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ বাদী হয়ে জেলা প্রশাসক নওগাঁ ড.আমিনুর রহমান ও সাবরেজিষ্টার বদলগাছী কে বিবাদী করে মামলা দায়ের করেন। (যাহার মামলা নং-০৪/২০১৭ইং) এর মধ্যে উক্ত সম্পত্তি বদলগাছী সহকারী কমিশনার (ভুমি) সাব-রেজিষ্ট্রারের নামে খারিজ খতিয়ান করে দেয়। ( যাহার খারিজ কেস নং-৮৫৪/১৬-১৭) যাহা বাদী মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ অবগত হইলে তার পক্ষে উক্ত খারিজ বাতিল চেয়ে তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম সেলিম গত ১৯/১/২০১৭ ইং তারিখে বদলগাছী সহকারী কমিশনার(ভুমি) বরাবর আবদন করলে সহকারী কমিশনার সুজিত রায় দেবনাথ কোন প্রকার শুনানি বা আদেশ না দিয়ে তালবাহনা করে সময় অতিবাহিত করতে থাকেন। এর এক পর্যায়ে সাব-রেজিষ্ট্রার উক্ত সম্পত্তিতে সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস স্থাপনের জন্য গণপূর্ত মন্ত্রনালয় থেকে বরাদ্ধ এনে স্থায়ী ভবন নির্মানের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। যা সম্পূর্ন বে-আইনী ও যবর দখলের সামিল। এই অবস্থায় সংবাদ সম্মেলন কারী জাহাঙ্গীর আলম সেলিম আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে উক্ত সম্পত্তিতে কোন প্রকার স্থাপনা যেন নির্মান করতে না পারে এবং তার বাবা মফিজ উদ্দীনের নামীয় সম্পত্তি থেকে জেলা প্রশাসক সহ সকল প্রকার প্রশাসনিক হস্থক্ষেপ থেকে অব্যহতি চেয়ে তাদের নামে খারিজ খতিয়ান করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। সেলিম জানায়, তার বাবা মফিজ উদ্দীনের জীব্বদশায় উক্ত সম্পত্তি তাদের ভোগ দখলে ছিল এবং তার বাবা চলতি বৎসরের এপ্রিল মাসে মৃত্যু বরন করার পর ও উক্ত সম্পত্তি ওয়ারিশ সুত্রে তাদের ভোগ দখলে রয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবী করেন।

এ বিষয়ে গতকাল বুধবার বেলা ৩.১৮ মিঃ মোবাইলে বদলগাছী সহকারী কমিশনার (ভুমি) (সদ্য বদলিকৃত) এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন যেহেতু বিষয়টি এখন বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে, আদালত যা রায় দিবেন তা মেনে নেওয়া উচিত বলে জানান।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ড. আমিনুর রহমানের সঙ্গে গতকাল বিকেল ৩.২৫ মিঃ এর সময় মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য গ্রহন করা সম্ভব হয়নি।