Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে শিশু খুনের ঘটনায় মামাসহ দু’জন গ্রেফতার: অপর এক শিশু ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতার

নভেম্বর ৩, ২০১৫
আইন- আদালত, ধর্ষণ, শ্রীপুর, হত্যা
No Comment
SAMSUNG CAMERA PICTURES

SAMSUNG CAMERA PICTURES

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট: গাজীপুরের শ্রীপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী এক শিশুকে জবাইকরে খুন করার ঘটনায় পুলিশ নিহত ওই শিক্ষার্থীর মামাসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও একই উপজেলায় চার বছরের অপর এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার আরো এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ মঙ্গলবার তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিতএক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া এলাকার নানার বাড়িতে স্কুল শিক্ষার্থী নাজনীন আক্তারকে (৭) গলাকেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরে এ ঘটনায় স্থানীয় আব্দুল করিম, কাদের সহ প্রতিপক্ষের কয়েকজনকে আসামি করে শ্রীপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে। আর এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নাজনীনের মামা রিপনকে ঢাকার রামপুরা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার স্বীকারোক্তিমতে একই এলাকা থেকে রবিউল নামের অপর একজনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের হেফাজত থেকে হত্যায় ব্যবহৃত একটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।
নিহত নাজনীন আক্তার (৭) শ্রীপুর উপজেলার চকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী এবং কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈবরের মাইচচর এলাকার আক্কাছ আলীর মেয়ে। প্রায় সাড়ে তিনবছর আগে আক্কাছ আলী তার প্রথম স্ত্রী আসমা বেগমকে (নাজনীনের মা) রেখে দ্বিতীয় বিয়ে করে এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ি এলাকায় বসবাস করতে থাকে। পরবর্তীতে নাজনীনের মা আসমা বেগমও দ্বিতীয় বিয়ে করে মেয়ে নাজনীনকে তার নানার কাছে রেখে স্থানীয় সলিং মোড় এলাকায় দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে বসবাস করছেন।

এদিকে, একই উপজেলা শ্রীপুরের মাওনা উত্তর পাড়ায় চার বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতের নাম মেহেদী হাসান (১৮)। সে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা উত্তর পাড়ার মফিজ উদ্দিনের ছেলে। গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ জানান, ধর্ষণের শিকার শিশুর বাবা রংপুরের পীরগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা। সে গত প্রায় দুই বছর ধরে শ্রীপুরের মাওনা উত্তর পাড়ার মফিজ উদ্দিনের বাড়িতে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকে। শিশুটির বাবা রাজমিস্ত্রী এবং মা স্থানীয় একটি স্পিনিং মিলে অপারেটরের চাকরি করেন। এ সুযোগে গত রবিবার ফুসলিয়ে শিশুটিকে মেহেদী তার শয়নকক্ষে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় শ্রীপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ভোরে পুলিশ শ্রীপুরের নয়নপুর এলাকা থেকে ধর্ষক মেহেদী হাসানকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত মেহেদী ওই শিশুকে ধর্ষণের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।