Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পোরশায় গ্রামবাসিদের সংবাদ সম্মেলন

সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭
নওগাঁ, সংবাদ সম্মেলন
No Comment

মোঃ হাবিবুর রহমান, মান্দা (নওগাঁ) সংবাদদাতাঃ নওগাঁর পোরশা উপজেলার গণপতিপুর গ্রামের ৯জন গ্রাম মাতব্বরের বিরুদ্ধে নওগাঁ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১১ তে মামলা দায়ের করার প্রতিবাদে গ্রামবাসিরা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। স্থানীয় জনগণের আয়োজনে গতকাল বৃহস্প্রতিবার সকাল ১১ টায় সংশ্লিষ্ট গ্রামে জনাকির্ন সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইউনুছ আলী। ইউনুছ আলী তার বক্তব্যে বলেন, গণপতিপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী শাহনাজ বেগম একই গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দীনের ছেলে নজরুল ইসলাম মাস্টার ও তার ছোট ভাই রুহুল আমিনের বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে ঝি-এর কাজ করে আসছিল। প্রতিদিনের মত শাহানাজ গত ৫/৮/১৭ইং তারিখ বিকালে রুহুল আমিনের বাড়িতে কাজ করতে গেলে সে শাহানাজকে জোর পূর্বক ধর্ষনের চেষ্ঠা করে। এ সময় তার চিৎকার শুনে পাশের মসজিদে আসরের নামাজ পড়তে যাওয়া মুসল্লিগণ এগিয়ে আসলে রুহুল পালিয়ে যায়। পরে শাহানাজের স্বামী বিষয়টি গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে মিমাংশা করার জন্য অনুরোধ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গ্রাম্য মাতব্বরগণ গত ৬/৮/১৭ইং সকালে শালিস বসালে সেখানে রুহুল আমিনের পরিবারের কেউ উপস্থিত হয়নি। এ কারণে বিষয়টি আমরা মিমাংশা করার চেষ্ঠা করেও তা সম্ভব হয়নি। ফলে শাহানাজকে আইনের আশ্রয় নেয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু রুহুলের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় শাহনাজ তার বিরুদ্ধে কোন রকমের ব্যবস্থা নিতে পারেনি। তা সত্যেও আমরা কিছুদিন পরে জানতে পারি রুহুল আমিন বাদি হয়ে মৃত মুনসের আলীর ছেলে আবদুল হাই(৫৫)কে প্রধান আসামি করে গ্রামের ৯জন মহৎ ব্যাক্তির নামে বিভিন্ন মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্যেশ প্রনোদিত তথ্য দিয়ে গত ২১ আগস্ট নওগাঁ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং- ৭৯সি/১৭ (পোরশা)। তিনি দাবি করে জানান, আজকে এখানে উপস্থিত আমরা সকল গ্রামবাসি মাতব্বর সম্মানিত ব্যাক্তি বর্গের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার তীব্র প্রতিবাদ ও প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। সে সঙ্গে মামলা সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুরোধ করছি। অপারদিকে বিষয়টি নিয়ে নজরুল ও তার ভাই রুহুল আমিনের সাথে কথা বলতে চাইলে তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।