Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পীরগঞ্জের সরঃ প্রাথঃ বিদ্যালয়ে শ্রেণী কক্ষের সমস্যা

নভেম্বর ৮, ২০১৭
রংপুর, শিক্ষা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
No Comment


বখতিয়ার রহমান, পীরগঞ্জ ( রংপুর): দেশের শিক্ষা ব্যাবস্থা নিয়ে বিভিন্ন মহলে নানা প্রশ্ন । অনেকে মনে করে দেশে শিক্ষার মান যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে । আবার অনেকে মনে করেন পরীক্ষা গুলো যে ভাবে চলছে তাতে পাশের হার বাড়লেও ছাত্রছাত্রীদের মাঝে প্রত্যাশিত মেধার বিকাশ ঘটছে না । আর শিক্ষা জীবনের প্রাথমিক স্তর প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলো ।
তাই কেমন চলছে পীরগঞ্জের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলো ? পেশাগত দায়িত্বে এর বাস্তবতা জানতে ৮ নভেম্বর বুধবার /২০১৭ গিয়েছিলাম রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার “ শুখান চৌকি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে” ।
যখন বিদ্যালয়ে পৌঁছি তখন ঘড়িতে সময় বিকাল ১১ টা বেজে মিনিট ৪০ । দুর থেকে বিদ্যালয় গৃহের বাহিরে কাউকে প্রত্যক্ষ করলাম না । ভেবেছিলাম বিদ্যালয় বন্ধ নাকি ? । নিকটে গিয়ে দেখি গৃহের দরজা খোলা । অফিসের দরজায় যেয়ে দেখলাম ২ জন শিক্ষক অফিসে বসে আছেন । ছাত্রছাত্রীরা সকলে শ্রেণী কক্ষে । সালাম দিয়ে অফিসে প্রবেশ করলে শিক্ষকগন আমাকে বসতে বললেন । একজন শিক্ষক আমার পুর্ব পরিচিত হেতু আমার পরিচয় দেয়ার প্রয়োজন হলো না । অফিসে উপস্থিত ২ শিক্ষকের মধ্যে ১ জন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম । অপরজন নাজমুল হুদা । প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারলাম বিদ্যালয়টিতে ১ জন প্রাক শিক্ষক সহ শিক্ষকের পদ সংখ্যা ৬ । প্রাক শিক্ষকের পদ শুন্য রয়েছে এবং ৫ জন শিক্ষকই বিদ্যালয়ে উপস্থিত । বিদ্যালয়ে উপস্থিত অপর ৩ শিক্ষিকা হচ্ছেন নাদিরা সুলতানা, খালেদা ইয়াছমিন ও নাজমা ইয়াছমিন । তারা ক্লাসে । আলাপের এক পর্যায়ে সেখানে আরও এক শিক্ষিকাকে লক্ষ্য করলাম । প্রধান শিক্ষক জানালেন, উক্ত শিক্ষিকা ফাতেমা আকতার সাথী প্যারা শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত রয়েছে ।
বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীর ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারলাম বিদ্যালয়টিতে বিদ্যালয়টিতে মোট ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ১৫০ জন । এর মধ্যে এ দিন ২৬ জন অনুপস্থিত ছিল । এর মধ্যে শিশু শ্রেণীর ৩২ জনের মধ্যে ৯ জন, ১ম শ্রেণীর ২৩ জনের মধ্যে ৪ জন , ২য় শ্রেণীতে ২০ জনের মধ্যে ১ জন, ৩য় শ্রেণীতে ২৮ জনের মধ্যে ৬ জন এবং ৪র্থ শ্রেণীতে ২৮ জনের মধ্যে ৫ জন এবং ৫ম শ্রেণীর ১৯ জনের মধ্যে ১ জন ছাত্রছাত্রী অনুপস্থিত রয়েছেন ।
বিদ্যালয়টিতে পাঠদ্বানের ব্যাপারে কোন সমস্যা আছে কিনা ? এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিদ্যালয়টিতে শ্রেনী কক্ষের সমস্যা । তবে আশা করি তা দ্রত কেটে যাবে। তবে বিদ্যালয়ের মাঠটি অসমতল হওয়ায় এবং মাঠ সংলগ্ন পুকুরের পার্শে প্রাচীর না থাকার কারনে ছাত্রছাত্রীদের খেলাধুলার ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে । আমি যখন এ আলোচনা করছিলাম তখন দুপুর ১২ টা । শিক্ষকেরা সে সময় ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে সমাবেশ করলেন । আমিও সমাবেশের ছবিটি ক্যামেরা বন্দি করে । দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে প্রধান শিক্ষককে সালাম জানিয়ে পেশাগত দায়িত্বে অন্যত্র রওয়ানা হই ।