Pages

Categories

Search

আজ- সোমবার ১২ নভেম্বর ২০১৮

পীরগঞ্জের সরঃ প্রাথঃ বিদ্যালয়ে হতাশাজনক উপস্থিতি

নভেম্বর ১২, ২০১৭
রংপুর, শিক্ষা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
No Comment


বখতিয়ার রহমান, পীরগঞ্জ ( রংপুর): দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে বিভিন্ন মহলে নানা প্রশ্ন । অনেকে মনে করেন দেশে শিক্ষার মান যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে । আবার অনেকে মনে করেন পাবলিক পরীক্ষা গুলো যে ভাবে চলছে, তাতে পাশের হার বাড়লেও ছাত্রছাত্রীদের মাঝে প্রত্যাশিত মেধার বিকাশ ঘটছে না । এমনি জল্পনা কল্পনার মাঝেও কেমন চলছে পীরগঞ্জের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলো ?
পেশাগত দায়িত্বে এর বাস্তবতা জানতে ১১ নভেম্বর শনিবার /২০১৭ বিকালে গিয়েছিলাম রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার বড়দরগাহ ইউনিয়নের “ শাহাপাড়া হাজীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে” । যখন বিদ্যালয়ে পৌঁছি তখন ঘড়িতে সময় বিকাল ১ টা বেজে মিনিট ১৫ মিনিট । বিদ্যালয়ে পৌঁছিই লক্ষ্য করলাম ছাত্রছাত্রীরা ক্লাসে । অফিসে লক্ষ্য করলাম, আমার পুর্ব পরিচিত বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম ও ১ শিক্ষিকা অফিসে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রছাত্রীদের সমাপনি পরীক্ষার প্রবেশ পত্র দেখছেন । তাদেক সালাম জানালাম । অফিসে বসতে বললেন । সেখানে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারলাম, বিদ্যালয়টিতে শিক্ষকের পদ সংখ্যা ৭ । আজকে ৬ জন কর্মরত রয়েছেন । প্রধান শিক্ষক ও কর্মরত অপর ৬ জন শিক্ষক শিক্ষকা হচ্ছেন, সুরভী ইয়াছমিন, শামীমা আকতার, ইসমতআরা বেগম, আবু রায়হান ও সাদিয়া আফরিন । এ শিক্ষকদের ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক জানান ৩ শিক্ষক ক্লাসে । এক শিক্ষক কামরুজ্জামান ছুটিতে রয়েছেন । ক্লাস শেসে ৬ শিক্ষককেই প্রত্যক্ষ করেছিলাম । বিদ্যালয়টির ছাত্রছাত্রীর ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারলাম, বিদ্যালয়টিতে মোট ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ২৯৬ জন । এর মধ্যে এ দিন ৮১ জন অনুপস্থিত ছিল । এর মধ্যে শিশু শ্রেণীর ৩৬ জনের মধ্যে ১৩ জন, ১ম শ্রেণীর ৪৮ জনের মধ্যে ১৪ জন , ২য় শ্রেণীতে ৫৯ জনের মধ্যে ১০ জন, ৩য় শ্রেণীতে ৬৪ জনের মধ্যে ১৯ জন, ৪র্থ শ্রেণতে ৪১ জনের মধ্যে ১০ জন এবং ৫ম শ্রেণীর ৪৮ জনের মধ্যে ১৫ জন ছাত্রছাত্রী অনুপস্থিত ছিল । বিদ্যালয়টিতে ৮১ জন ছাত্রছাত্রীর অনুপস্থিতির ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, কেন যে আজকে এত অনুপস্থিত নিজেও বুঝতে পারছিনা । ছাত্রছাত্রীদের ইউনিফর্ম পোশাক না থাকার ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক জানান, অনেক বলা হচ্ছে তবুও কাজ হচ্ছেনা ।
বিদ্যালয়টিতে পাঠদ্বানের ব্যাপারে কোন সমস্যা আছে কিনা ? এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, বিদ্যালয়টিতে শ্রেণী কক্ষ, ক্রীড়া সামগ্রীর সমস্যা তো রয়েছেই । এ ছাড়া শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের জন্য আলাদা কোন ল্যাট্রিন না থাকায় অনেক সময় বেশ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে । আর ুতেমন কোন আলোচনা না থাকায় শিক্ষকদের সালাম জানিয়ে বিকাল ১ টা ৪০ মিনিটে বিদ্যালয় ত্যাগ করেছিলাম ।