Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পাঁচবিবিতে ছাত্র নেতাদের নামে অধ্যক্ষের মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলা দায়ের

অক্টোবর ৩০, ২০১৭
জয়পুরহাট, প্রতিবাদ, সংবাদ সম্মেলন
No Comment


আহসান হাবিব, পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) সংবাদদাতা : জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মহীপুর হাজী মহসীন সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রদলের ৪ নেতার নামে অধ্যক্ষ বরজাহান আলী কর্তৃক মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আজ সোমবার সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। কলেজের মূল ফটকে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র তৌহিদুল ইসলাম তৌহিদ। তিনি বলেন অধ্যক্ষ অবৈধ ভাবে কলেজের গাছ কর্তন, কলেজভর্তি ও ফরম পূরণে ছাত্রদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়। পরিত্যাক্ত ভবণ সংস্কারের নামে ৩ লক্ষ টাকা আত্মসাত। প্রতিবছর বাসক্রয়ের কথা বলে ছাত্রদের কাছ থেকে দু’বারে এক হাজার টাকা উত্তোলন করলেও অধ্যবধি বাসক্রয় কিংবা বাসের পিছনের গøাস ক্রয় করেননি। কলেজে প্রশংসা পত্র ও প্রত্যায়ন পত্রের নামে ভুয়া রশিদ মুলে একশত টাকা এবং একাদশ শ্রেণির নিবন্ধন ফরম পূরণে একশত টাকা উত্তোলনসহ বাস অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে কলেজ পরিচালনা করে আসছেন। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১৫ অক্টোবর মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা রাজশাহী অঞ্চলের পরিচালক ড.আব্দুল মান্নান সরকারের নের্তৃত্বে ৫ সদস্যের একটি দল পরিদর্শনে আসেন। তারা অধক্ষের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে আমাদের কাছ থেকে পুনরায় লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করেন। এরই প্রেক্ষিতে অধ্যক্ষ বরজাহান আলী ছাত্রদলের ৪ নেতার প্রতি ক্ষিপ্ত হন। নিজের দুর্নীতি আড়াল করতে গত ১৭ অক্টোবর রাতে পাঁচবিবি থানায় গনেশপুর গ্রামের রহমত আলীর ছেলে কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক লিটন মন্ডল, ধাওয়াইপুর গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে যুগ্ম সম্পাদক মাহমুদ হোসেন মামুন, একই এলাকার আফছার আলী আকন্দের ছেলে সাংগঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন ও মহীপুর গ্রামের বাসুদেব ঘোষের ছেলে কলেজ ছাত্রদল সভাপতি সুশান্ত ঘোষের নামে ২ লক্ষ টাকা চাঁদাবাজীর মামলা দায়ের করেন। আমরা অনতি বিলম্বে মিথ্যা চাঁদাবাজীর মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানায়। অন্যথায় পরবর্তীতে কলেজের সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে।