Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পলাশের রাজনীতি নিয়ে মঈন খানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে — জাহিদ হোসেন গাজী

মার্চ ১৫, ২০১৬
নরসিংদী, মিডিয়া, রাজনীতি
No Comment

IMG_2654_copy[1]

নূরে-আলম রনী, পলাশ সংবাদদাতাঃ নরসিংদীর পলাশ উপজেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক আলহাজ্ব জাহিদ হোসেন গাজী বলেছেন, ইউনিয়ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পলাশের বিএনপির রাজনীতি নিয়ে ড. আবদুল মঈন খানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। তিনি দাবী করেন, একটি কুচক্রিমহল তৃণমূল নেতাকর্মীরে দীধাদন্ধে ফেলার জন্য বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়ায় সংবাদ প্রচার করে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার রাতে পলাশ উপজেলা সাংবাদিক কার্যালয়ে জরুরী সংবাদ সম্মেলন ডেকে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, আমি অত্যন্ত দঃখ সহিত বলতে চাই গত কয়েকদিন পূর্বে একটি অনলাই ও নরসিংদীর সাপ্তাহিক একটি পত্রিকায় ডাঙ্গা ইউনিয়নের নির্বাচনের প্রার্থী সম্পর্কে একটি মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। যা আমার ও দলের সকল নেতাকর্মীদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এতে পলাশের রাজনৈতিক কর্ণধার ড. আবদুল মঈন খান ও তার একান্ত সহকারীকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় পলাশের বিএনপির পক্ষ থেকে তীব্র নিন্ধা জানাচ্ছি। মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় দলের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আমি বলতে চাই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. আবদুল মঈন খান ও ওনার ব্যাক্তিগত সহকারী বাহাউদ্দিন ভূইয়া মিলটনের বিরুদ্ধে তথ্য সন্ত্রাসের মাধ্যমে এক শ্রণীর ছামারীবাজ হলুদ সাংবাদিক গভীর ষরযন্ত্র চালাচ্ছে। ডেইলি নিউজ ডট কমের নরসিংদী প্রতিনিধি আবদুর রহিম মেহেদী ও সাপ্তাহিক নরসিংদীর সময় এর সাংবাদিক ভাইদের জানাতে চাই ড. মঈন খান একজন সৎ , উচ্চ বংশীয় ও উচ্চ শিক্ষীত ব্যাক্তি। যার সুনাম দেশ বিদেশ জুড়ে আছে। তিনি দলের জন্য দেশে বিদেশে কেন্দ্রীয় ভাবে এবং তার নির্বাচনি এলাকায় জন্য কঠোর প্ররিশ্রম করেন। দু একদিন পরপর এলাকায় এসে ওনার নির্বাচনি এলাকায় গণসংযোগ করেন। এবং তৃণমুণ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের পাশে থাকেন। যার জন্য তৃণমুল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ও কর্মী সমর্থক ওনার জন্য সর্বধা জীবন দিতে প্রস্তুত। ডাঙ্গার নির্বাচনে তৃণমুল নেতারা ভোট দেয় ধানের শীষ প্রতীক হাজী শফিকুল ইসলাম স্বপনকে। তিনি তৃণমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মতামতকে প্রাদাণ্য দিয়েছেন। প্রকাশিত সংবাদে বিএনপির সভাপতি এরফান আলী ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলামের যে বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে তাহারা জানান, এ দরনের কোন বক্তব্য তারা দেয়নি। তাদের বিরুদ্ধে একটি চক্রান্ত করা হয়েছে। ড. মঈন খানের একান্ত সহকারী বাহাউদ্দিন ভূইয়া মিলটনের বিরুদ্ধে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পুর্ণ মিথ্যা কারণ তৃণমুল নেতাকর্মীরা ভোটের মাধ্যমে তাদের দলীয় প্রার্থী নির্বাচন করেছেন। এতে মিলটনের কোন হাত নেই। এবং গজারিয়া থেকে সবুজ মৈশানকে মিলটনই চাপ প্রয়োগ করে বসিয়ে দিয়েছেন। সাংবাদিক ভাইদের শদ্ধ্রার সাথে বলতে চাই ড. মঈন খান এদেশের গর্ভ। ওনার মতো ব্যাক্তি দৈনিক , মাসিক বা বাৎষরিক জন্ম নেয় না। ওনারা যুগে যুগে আসেন। ওনার সম্পর্কে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করার আগে আপনাদের যেন বিবেগে বাধা দেয়। টাকা খেয়ে কারো বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাবেন না।