Pages

Categories

Search

আজ- রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮

নিহত ‘জঙ্গিদের’ একজন আকাশ

অক্টোবর ৮, ২০১৬
জাতীয়
No Comment

dsc062781নিজস্ব প্রতিবেদক:
গাজীপুরের নোয়াগাঁও এলাকার পাতারটেকে নিহত সাত ‘জঙ্গি’র একজন আকাশ বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। তিনি বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত যে তামিম চৌধুরীর পর যে নেতৃত্ব দিত, ছদ্মনাম হোক আর তাদের সাংগঠনিক হোক, তার নাম হচ্ছে আকাশ। সে এখানে নিহত হয়েছে, সেই সাতজনের মধ্যে একজন।’

এ ছাড়া জঙ্গি আস্তানা গুঁড়িয়ে দিতে সক্ষম হওয়ায় তিনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রশংসা করেন। তিনি আরও বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের সফল অভিযানের পর আমরা একের পর এক জঙ্গি আস্তানা গুঁড়িয়ে দিচ্ছি। এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গাজীপুরের দুটি এবং টাঙ্গাইলের একটি স্থানে জঙ্গি আস্তানা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতায় জঙ্গি-সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।’

আজ শনিবার বিকেলে পাতারটেকের একটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষে সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আকাশের কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সব সময় বলে আসছি শতভাগ জঙ্গি নির্মূল করতে পারিনি। এর মধ্যে দু-একজন এদিক–সেদিক ছিল, তারাও সংঘবদ্ধ হওয়ার একটা প্রচেষ্টা নিচ্ছিল এই আকাশের নেতৃত্বে এটাই আমাদের ধারণা ছিল।’ তিনি আরও বলেন, আরও কয়েকটি সফল অভিযান হয়েছে। গাজীপুরের আরেক জায়গায় দুজন এবং টাঙ্গাইলে দুজন জঙ্গি নিহত হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সাতজন জঙ্গি এখানে অবস্থান করছিল। আমাদের পুলিশ বাহিনী যখন তাদের আত্মসমর্পণের অনুরোধ করে, তখন তারা আত্মসমর্পণ না করে উপর্যুপরি গুলিবর্ষণ শুরু করে। শুধু গুলি বর্ষণ করে ক্ষান্ত হয়নি, তারা গ্রেনেড নিক্ষেপ শুরু করে। আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চরম ধৈর্যের পরিচয় দেয়। আত্মসমর্পণের জন্য বারবার বলা হলেও তারা করেনি। এরপর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট, গাজীপুর জেলা পুলিশ, পুলিশ হেডকোয়ার্টার সফল অভিযান পরিচালনা করে। এখানে আমরা সাতটি মৃতদেহ, তিনটি অস্ত্র, একটি গ্যাস সিলিন্ডার, বেশ কিছু চাপাতি পেয়েছি। এই ঘটনায় একজন পুলিশ আহত হয়েছেন। তিনি হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।’ তিনি আরও বলেন, একটা কিছু করার জন্য তারা এখানে সমবেত হয়েছিল।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, জঙ্গিদের ছোড়া ১৩-১৪টি গ্রেনেড বিস্ফোরণ পুলিশ বাহিনী প্রত্যক্ষ করেছে। জীবন বাজি রেখে প্রতিবার যেমন পুলিশ বাহিনী দেশের জন্য, দেশের মায়ায় জঙ্গি দমনে সর্বশক্তি প্রয়োগ করছে। আজও একটা সফল অভিযানের মাধ্যমে সেটা প্রমাণ করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, জঙ্গিদের আস্থা অর্জনের জন্য তাদের জন্য পানি পাঠানো হয়েছিল, কিন্তু তারা বিনিময়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর গুলি ছোড়ে।