Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নির্বাচন থেকে বিএনপিকে সরিয়ে নেয়ার কোন খায়েশ আওয়ামী লীগের নেই- ওবায়দুল কাদের

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট: সড়ক ও পরিবহন পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারটা সম্পূর্ণভাবে আদালতের এখতিয়ার। আদালতে তিনি জামিন পেতে পারেন, নাও পেতে পারেন। উচ্চ আদালত তার সাজা বহালও রাখতে পারে, তাকে ছেড়েও দিতে পারে। সেটা আমাদের বিষয় না। এখানে সরকারের পরিস্কার বক্তব্য সরকার কোনভাবেই এখানে হস্তক্ষেপ করবে না।

তিনি বলেন, আন্দোলনের পাঠ তাদের চুকে গেছে। আন্দোলন করতে পারবে না। আমি তাদের পরামর্শ দিব, নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হতে। নির্বাচন থেকে তাদের সরিয়ে নেয়ার কোন খায়েশ আওয়ামী লীগের নেই, আমাদের সরকারের নেই। তারা নির্বাচন করবে। একটা নিবন্ধিত দল সে অধিকার তাদের আছে। বেগম জিয়াকে ছেড়ে দেয়া, বিষয়টা আমাদের হাতে নেই। এটা আইনগত লিগ্যল ব্যাটল। লিগ্যাল ব্যাটলের মাধ্যমে খালেদা জিয়া বের হলে এখানে আমাদের কোন বক্তব্য নেই।
তিনি শনিবার সকালে গাজীপুরের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের ফোর লেনের উন্নয়ণ কাজ পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, আন্দোলন করে বিএনপি চেয়ারপার্সনকে বের করবে সে বাস্তবতা এখন বাংলাদেশে নেই। বাংলাদেশের জনগণ কারো কারামুক্তির জন্য আন্দোলন করে কারা মুক্ত করবে সেই বাস্তবতা বাংলাদেশে নেই। এটা বিএনপিকে বুঝতে হবে। তারা বেগম জিয়ার গ্রেপ্তারের পর ভেবেছিল বাংলাদেশ উত্তাল হবে। কিন্ত তাদের সে স্বপ্ল পূরণ হয়নি। তারা যদি মনে করে আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে বের করবেন সে আশার গুড়েবালি।
মন্ত্রী বলেন, আদালতের একটা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তারা যে এখন বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন, সমাবেশের ডাক দিচ্ছে, এটাওতো আদালত অবমাননা। তারাতো এটা পারে না। আদালতের রায়ে তাদের নেত্রী বেগম জিয়া দন্ডিত হয়েছেন। আদালতের বিরুদ্ধেতো তারা আন্দোলন করতে পারে না। পুলিশের সাথে তারা সংঘাত করতে চান, রাস্তায় তারা অবস্থান করবেন, অনশন করবেন রাস্তা বন্ধ করে, এটা কি কোন আইন সিদ্ধ বিষয়? রাস্তা বন্ধ করে জনগণের জন্য ভোগান্তি সৃষ্টি করলে এটা কি জনগণ সমর্থন করবে?
মন্ত্রী ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফোর লেনের উন্নীতকরণ কাজ প্রসঙ্গে বলেন, এ কাজ সাসেক প্রজেক্টটে হচ্ছে। এ প্রজেক্টেরে যে অগ্রগতি এখানে চারটি ফ্লাইওভার নির্মিয়মান। শতকরা ৭০ ভাগ শেষ হয়েছে। এ প্রজেক্টে ২৬টি ব্রীজ আছে। এর মধ্যে ২৪টি ব্রীজের কাজ শেষ হয়েছে। ৬০টির মতো কালর্ভাট আছে এর মধ্যে ৫২টির কাজ শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, রমজানের ইদের আগে ৫০ কিলোমিটার ফোর লেন এখানে দৃশ্যমান পাবেন। আগামি রমজানের ঈদের সময় এবং ঈদের পরে এখানে আগের সেই অসহনীয় যানজট থাকবে না।

এ সময় মন্ত্রীর সাথে সড়ক ও জনপথের ঢাকা বিভাগীয় প্রকৌশলী সুবজ উদ্দিন খান, প্রকল্প পরিচালক মো: ইসহাকসহ সড়ক ও জনপথের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।