Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নান্দাইলে বাসে যুবতী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতার

জানুয়ারি, ৬, ২০১৬
অপরাধ, আইন- আদালত, ধর্ষণ, ময়মনসিংহ
No Comment

rape420-sm20140108182230-300x165[1]

এবি সিদ্দিক খসরু, নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের নান্দাইল চৌরাস্তা এলাকায় বারুইগ্রাম মাদরাসার সন্নিকটে পাকা রাস্তার উপর বাসে এক যুবতী ধর্ষনের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষককে আটক করা হয়েছে।

নান্দাইল থানা সূত্র জানায়, ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা মাইজবাগ ইউনিয়নের রাউলেরচর গ্রামের যুবতী কণ্যা (১৯) কে তার বড় ভাই সুমন ৫ জানুয়ারী নরসিংদীতে (মেয়েটির) কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য লক্ষীগঞ্জ বাসষ্ট্যান্ড থেকে দুপুর ২ ঘটিকায় (টাঙ্গাইল-ব–৩৩৩ নং আল্লাহরদান নামক) বাসে তুলে দেয়। বাসটি চৌরাস্তা এসে বারুইগ্রাম মাদরাসার নিকট সব যাত্রী নামিয়ে দেয়। মেয়েটিকে বাসের হেলপার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার পুবাইল গ্রামের মৃত মৃত জুলহাস উদ্দিনের পুত্র আলমগীর মেয়েটিকে বলে, তাকে ভৈরব যাওয়ার গাড়ীতে তুলে দিবে একথা বলে কালক্ষেপন করতে থাকলে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসে। আলমগীর মেয়েটিকে বলে রাত হয়ে গেছে সকালে বাসে তুলে দিবে এ কথা বলে মেয়েটিকে হোটেল থেকে ভাত এনে দেয় এবং ভাত খেয়ে বাসেই শুয়ে থাকতে বলে। মেয়েটি সরল বিশ্বাসে বাসে শুয়ে থাকা অবস্থায় রাত আনুমানিক ১২.০৫ মিনিটে আলমগীর বাসে উঠে মেয়েটিকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

এ সময় আলমগীরের সহযোগী গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর গ্রামের মোশাররফ পিতা-অজ্ঞাত, ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার লক্ষীগঞ্জ গ্রামের শাহজালাল (২২) পিতা- অজ্ঞাত গণ বাসের গেইটে পাহাড়া দিচ্ছিল। মেয়েটির আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে ও ধর্ষক আলমগীরকে আটক করে। অন্য সহযোগিরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

খবর পেয়ে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ বাসসহ ধর্ষক ও ধর্ষিতাকে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে নান্দাইল মডেল থানায় মেয়েটি বাদী হয়ে থানায় মামলা নং ০৬ (০১)১৬ ধারা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩ এর ৯(১)/৩০ ধারায় একটি মামলা রুজু করেছে।