Pages

Categories

Search

আজ- রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নান্দাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত শুরু

অক্টোবর ১৯, ২০১৫
দূনীতি, ময়মনসিংহ, সরকারি কর্মচারী
No Comment

এবি সিদ্দিক খসরু, নান্দাইল প্রতিনিধিঃ durniti

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আইনাল হক ও ডিজি প্রতিনিধি চন্ডীপাশা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাজির উদ্দিনের বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগে দূর্নীতির অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে । তদন্তের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আনন্দ মোহন সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ জাকির হোসেন । জানা যায়, গত জুলাই মাসে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় এ বিষয় নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়। উপজেলার বাকচান্দা আব্দুস সামাদ একাডেমীতে গত ১৭ জুন সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে নিয়োগ পরীক্ষায় নিয়োগ বোর্ড কর্তৃপক্ষ অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে প্রথম স্থান হওয়া প্রার্থীকে তৃতীয় এবং পঞ্চম স্থান অধিকারী প্রার্থী মো. মাহবুবুল আলমকে প্রথম দেখিয়ে নিয়োগ প্রদানের জন্য সুপারিশ করা হয়। লিখিত পরীক্ষায় নিয়োগপ্রাপ্ত মাহবুব ৭.৫ পেলেও খাতার কভার পৃষ্টায় তাকে ১৪.৫ নম্বর দেওয়া হয়েছে। আর চূড়ান্ত ফলাফল সিটে দেখানো হয়েছে ১৪ নম্বর, মৌখিক পরীক্ষায় তাকে ১১.২ ও সনদপত্র মূল্যায়নে ৫ নম্বর দেওয়া হয়। এভাবে তিনি মোট ২৩.৭ নম্বর প্রাপ্ত হলেও নিয়োগ কর্তৃপক্ষ রহস্যজনকভাবে তাকে ৩০.২ নম্বর দিয়ে প্রথম স্থান অধিকারী হিসেবে নিয়োগপত্র দিয়েছেন। অপরদিকে, হুমায়ুনকে ওই লিখিত পরীক্ষায় ৯.৫ নম্বরের  স্থলে কভার পৃষ্টায় তাকে ৮.৫ নম্বর দেওয়া হয়েছে,  মৌখিক পরীক্ষায় ১৪.২ এর পরির্ততে দেওয়া হয়েছে ১২.২ নম্বর আর সনদপত্র মূল্যায়নে ৬ নম্বর প্রাপ্ত হলেও দেয়া হয় ৫ নম্বর।  ফলে তিনি মোট ২৯.৭ নম্বর প্রাপ্ত হলেও তাকে ২৫.২ নম্বর দিয়ে তৃতীয় করা হয়েছে। লিখিত পরীক্ষার নম্বরের এই অসংগতিগুলো ডিজি প্রতিনিধি প্রধান শিক্ষক সংশোধন করলেও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আইনাল হক সংশোধন করতে অস্বীকৃতি জানান। এ বিষয়টি নিয়ে  ময়মনসিংহের বিজ্ঞ নান্দাইল সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এ ব্যাপারে  তদন্ত কর্মকর্তা আনন্দ মোহন সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ জাকির হোসেন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উক্ত বিষয়ে মহা-পরিচালক শিক্ষা (ডিজি) অফিস হতে তদন্ত করার জন্য তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি জরুরী ভিত্তিতে দেখা হচ্ছে বলে তিনি জানান।