Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮

নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবে দলবল নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় সাংবাদিক মুরাদের হামলা

নভেম্বর ৬, ২০১৭
অপরাধ, আইন- আদালত, নওগাঁ, মিডিয়া
No Comment


আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবে রোববার বিকেলে দলবল নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আজাদ হোসেন মুরাদ হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুরসহ অগ্নিসংযোগ করেছে। এ সময় বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা চ্যানেল আই ও বাসসের নওগাঁ প্রতিনিধি এবং জেলা ক্লাবের সভাপতি কায়েস উদ্দিনকে বেদম মারপিট করে এবং আসবাবপত্রে আগুন ধরিয়ে দেয়।

আগুনের খবর পেয়ে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে প্রেস ক্লাবের টেলিভিশন, চেয়ার, টেবিলসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার সম্পদের ক্ষতি হয়। এদিকে হামলার পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে সহকর্মীরা আহত সাংবাদিক কায়েস উদ্দিনকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। এ ঘটনায় জেলার সাংবাদিক মহলে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার পর পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসেন ও প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে এই কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মীর মোশারোফ হোসেন জুয়েল জানান, রোববার বিকেলে সভাপতি কায়েস উদ্দিন ক্লাবে বসে তার দাপ্তরিক কাজ করছিল। এ সময় কথিত সাংবাদিক আজাদ হোসেন মুরাদের নের্তৃত্বে ৭-৮ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী অতর্কিত হামলা করে। তারা কেরোসিন ঢেলে আসবাবপত্রে অগ্নি সংযোগ করে। এ সময় হামলাকারীরা প্রেস ক্লাবের সভাপতিকে বেদম মারপিট করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার বিষয়ে আহত সাংবাদিক কায়েস উদ্দিন জানান, ক’দিন আগে প্রেস ক্লাবের সকল সদস্যের সদস্যপদ নাবায়ন করা হয়। এতে আজাদ হোসেন মুরাদ নামে ওই কথিত সাংবাদিকের কোন পরিচয়পত্র না থাকায় তাকে প্রেস ক্লাবের সদস্য পদ থেকে বাদ দেয়া হয়। এর জের ধরে মুরাদ ক্ষিপ্ত হয়ে আমার মোবাইল ফোনে দেখে নেয়ারও হুমকি দেয় এবং বলে এরপর আপনার পালা শুরু হবে। এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই রোববার বিকেলে সাংগঠনিক কাজ করার সময় প্রেস ক্লাবের ভিতরে প্রবেশ করে আমাকে মারপিট করে প্রেস ক্লাবের আসবাবপত্রে কেরোসিন ঢেলে দিয়ে অঙ্গিসংযোগ করে সে ও তার লোকজন পালিয়ে যায়।

ঘটনারপর নওগাঁ সদর আসনের এমপি ও জেলা আ’লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মালেক, পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন ও জেলা প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা প্রেস ক্লাব ভবন পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনের সময় সদর আসনের এমপি আব্দুল মালেক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করার ব্যবস্থা করা হবে।

অপর দিকে পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসেন এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, এ ঘটনার সাথে জড়িত যেই হোক না কেন কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। আইনের উর্দ্ধে কেউ নয়। হামলাকারীরা যত শক্তিশালীই হোক তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

প্রেস ক্লাবের সভাপতি কায়েস উদ্দিন বাদি হয়ে রোববার রাতে নওগাঁ সদর মডেল থানায় আজাদ হোসেন মুরাদসহ ৭-৮ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে।
নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো: আনোয়ার হোসেন জানান, রোববার রাতে প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে ক্লাবের সভাপতি থানায় একটি মামলা করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে অতিদ্রæত জড়িত ব্যক্তিদের আটক করে আইনের আওতায় এনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।