Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

তাড়াশে পিআইও অফিসের লাগামহীন দূর্নীতির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ

এ এম জাহিদ হাসান , চলনবিল ব্যুরো চীফ : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে  মসজিদের নামে  উন্নয়ন বরাদ্দের ৩টন টি,আর মসজিদ কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের ছাড়াই জালিয়াতি ও  ভুয়া মাষ্টার রোল  করে আত্মসাৎ করেছে একটি চক্র । বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে । ভ’য়া সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ এবং উপজেলা পিআইও অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ এই চক্রের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ ও টিআর এর অর্থ ফেরত চেয়ে স্থানীয় সাংসদ, জেলাপ্রশাসক ও উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবর লখিত অভিযোগ করেছে মসজিদ কমিটি ও গ্রামবাসি । লিখিত অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার চকগোপীনাথপুর জামে মসজিদের নামে গত অর্থ বছরে উন্নয়নের জন্য ওই গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদ নিজে মসজিদ কমিটির ভূয়া সভাপতি সেজে এবং গোলাম রব্বানি, সোবাহান সহ ৪ ব্যক্তি নাম সদস্য করে মসজিদে নামে ভূয়া প্রকল্প দাড় করিয়ে জমা দেন । মসজিদ উন্নয়নের জন্য ৩ টন টি আর এর বরাদ্দ দেওয়া হলে পিআইও অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদেও সাথে আতাতের মাধ্যমে ভূয়া সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ গত মে ও জুন মাসে ২ কিস্তিতে প্রকল্প উত্তোলন করে নেন।  গোলাম রব্বানি, সোবাহানসহ যে ৪ ব্যক্তি নাম সদস্য করে জমা হয় তারা কিছুই জানেন না বলে জানান এবং তাদের স্বাক্ষর জাল করা  হয়েছে অভিযোগ করেন । মসজিদের কাজ না করেই এবং মসজিদ কাজ পরিদর্শন না  করেই পিআইও  অফিস অর্থ  উত্তোলনের ডিও প্রদান করায় অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মাচারীদের জড়িত থাকার  বিষয়টি সুস্পষ্টভাবে হয়ে উঠেছে । অভিযুক্ত ওয়াহেদ আলীর মোবাইলে ফোন করার পর তার ছেলে শরিফুল ইসলাম জানান এ বিষয়ে আমার বাবা কথা বলবেন না আমি বলছি আমার বাবা  তাড়াশে গিয়ে জানতে পেরেছেন এবং নেতাদের সাথে কথা হয়েছে বিষয়টি সমাধান করা হবে । পিআইও তরিকুল ইসলাম জানান তিনি সিরাজগঞ্জে মিটিং আছেন পরে কথা বলবেন । খোঁজ নিয়ে জানা যায় চৌপাকিয়া গ্রামের মন্দির এর নামে ভূয়া কমিটি নামে প্রকল্ল জমা দিয়ে বরাদ্দকৃত অর্থ  আত্মসাৎ করার  অভিযোগ উঠার পর সে বিষয়টিও ধামাচাপাঁ দেওয়া হয়েছে ।