Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে ৩৫ কিলোমিটার যানজট, ভোগান্তীতে সাধারণ যাত্রীরা

মনির হোসেন জীবন, কালিয়াকৈর : ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আর এতে করে চরম ভোগান্তীতে পড়েছে ওই মহাসড়কে চলাচল কারী সাধারণ যাত্রীরা।
আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে এ যানজটের চিত্র দেখা গেছে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যা তীব্র আকার ধারণ করেছে।
সরেজমিনে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ঘুরে দেখা গেছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহসাড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকা থেকে গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ি, চন্দ্রা-নবীনগর সড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় থেকে জিরানি বাজার এবং টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই পর্যন্ত মহাসড়কের উভয় পাশে প্রায় দীর্ঘ ৩৫ কিলোমিটার যানজট ছাড়িয়ে গেছে। ফলে চরম ভোগান্তীতে পড়েছে সাধারণ যাত্রীরা। অনেককে পায়ে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা দিচ্ছে। সড়কে কাঁদা পানির সৃষ্টি হয়ে এক উদ্ভুত অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকা মেট্রো ট ২০-৩০৫৪ এর চালক মো: কামরুল ইসলাম ‘গাজীপুর দর্পণ’কে জানান, সকাল ১০ টা নাগাদ গাজীপুরের কোনাবাড়ি এলাকায় পৌছায় সে। কোনাবাড়ি থেকে ৫ ঘন্টায় চন্দ্রা এসে যানজটে পড়ে আছে। গন্তব্যে পৌঁছাতে তাকে অনেক বেগ পেতে হচ্ছে।
ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা অপর ট্রাক চালক মো: ইদ্রিস আলী জানান, সকাল থেকে চন্দ্রা এলাকায় যানজটে বসে আছি। কখন গন্তব্যে পৌছতে পারবো জানি না। সড়কে খুড়াখুড়ির কারণেই এ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে বলেও তিনি জানান।
কোনাবাড়ী (সালনা) হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হোসেন সরকার মুঠোফোনে  জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে উন্নতিকরণের কাজ চলছে। আর কাজের ধারবাহিকতায় সড়ক ও জনপথ বিভাগ (আরএইচডি) চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় পিলার খননের কাজ চালাচ্ছে। ফলে যানজটের তীব্রতা বেড়েছে।
তিনি আরো জানান, চন্দ্রা এলাকায় সড়কে ডাইভারশন করে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখা হচ্ছে। এছাড়া যানজট নিয়ন্ত্রনে হাইওয়ে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।