Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঝালকাঠির রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস এর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

অগাষ্ট ২৬, ২০১৭
ঝালকাঠি, প্রতিবাদ, সংবাদ সম্মেলন
No Comment

মোঃ আমিনুল ইসলাম, ঝালকাঠি সংবাদদাতা: কলেজ ছাত্র ও সাংবাদিকে মিথ্যা নারী ও শিশু মামলায় আসামী করে ক্ষমতার অপব্যবহার হয়রানির অভিযোগে ঝালকাঠির রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস এর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন।

আজ শনিবার বেলা ১১ টায় স্থানিয় একটি কমেউনিটি সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন রাজাপুরের টিএন্ডটি রোড়ের তাসলিমা বেগম। বক্তব্যে দাবি করেন, গত ২১ আগস্ট রাজাপুর বাইপাস মোড় সংলগ্ন একটি জমির মালিকানা নিয়ে ইউপি সদস্য মুন্নি বেগমের পিতা ইউনুস ঢাড়ীর সাথে মুক্তিযোদ্ধা আঃ খালেকের জমিজমা নিয়ে বিরোধের ঘটনায় মুন্নি বেগম চাঁদাদাবী, মারধর, টাকা নেয়াসহ সম্মনহানীর লিখিত অভিযোগদেয় থানায়।

ওসির নেপথ্য নির্দেশে পুলিশ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনসহ বিভিন্ন ধারায় মামলা রেকর্ড করে কলেজ ছাত্র ইমরান হোসেন আদনান ও সাংবাদিক মুরাদ দু’ভাইকে আসামী করে। তবে উক্ত বিরোধী দু’পক্ষের কারো সাথে আমাদের কোন আতœীয়তা বা ঘনিষ্টতা নেই বলে জানান তাসলিমা বেগম।

গত ৭ ডিসেম্বর ২০১৬ রাত ১১ টার দিকে বাসা থেকে থানায় ডেকে পাঠান ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস। তারা থানায় আসলে আদনানকে চোর বলে আখ্যায়িত করেন ওসি। চুরি মামলায় জোরপূর্বক তার স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয় তাকে। এতে রাজি না হওয়ায় ওসির কক্ষে আটকে আদনানকে বেধরক পেটায় পুলিশ। ওসিকে সহযোগিতা করেন এসআই নজরুল ইসলাম ও এএসআই সঞ্জীবন বালা। মারধরের এক পর্যায় আদনান জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

গত ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ স্থানীয় শিক্ষক ওয়ালিউর রহমানের বাসায় চুরির মামলায় সন্ধিগ্ধ আসামী দেখিয়ে রাজাপুর থানা পুলিশ আদনানকে আদালতে সোপর্দ করে। আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। জেলখানায় সে হাসপাতালে ছিল। পরে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে গত ২৩ জানুয়ারি মুক্তি পায়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ২৪ জানুয়ারি থেকে টানা ছয়দিন বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেয় আদনান।

কলেজ ছাত্রকে শারিরিক নির্যাতন ও মিথ্যা চুরির মামলায় সন্ধিগ্ধ আসামী করে হয়রানির অভিযোগে ঝালকাঠির রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াসসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তা ও এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে নির্যাতিন কলেজ ছাত্র মোহাম্মদ ইমরান হোসেন আদানান বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করে। ৩১ আগস্ট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ঐ মামলায় স্বক্ষী-প্রমান গ্রহনের দিন ধার্য থাকায় ওসি শেখ মনির উল গীয়াস মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে।

ওসির আক্রোস থেকে দুই সন্তান নিয়ে বাঁচতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তাসলিমা বেগম মাননীয় প্রধানমত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আইনগত প্রতিকারের আবেদন জানায়।