Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮

জনগণ নিজেদের অধিকার ফিরিয়ে আনবে, এটাই ইতিহাস : ফখরুল

অক্টোবর ২৩, ২০১৫
জাতীয়, রাজনীতি
No Comment

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট:bd0b3c8f9c0589c7d1681f087583d893-mirza-fakhrul-islam-alamgir

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনগণ তাঁদের অধিকারগুলো ফিরিয়ে আনবে, এটাই ইতিহাস। দেশের মানুষ সবসময়ই তাদের অধিকারগুলোকে সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আদায় করেছে।
প্রয়াত চলচ্চিত্রকার চাষী নজরুল ইসলামের ৭৫তম জন্মবার্ষিকী স্মরণে শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর কমলাপুরে এই চলচ্চিত্রকারের বাসায় আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এ সব কথা বলেন। ২০১৫ সালের ১১ জানুয়ারি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান চাষী নজরুল ইসলাম। প্রখ্যাত নাট্যকার আমজাদ হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রয়াত চাষী নজরুলে কর্মজীবনের ওপর বক্তব্য দেন চলচ্চিত্রকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্যর অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, অধ্যাপক তারেক শামসুর রহমান, ডক্টরস এ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ছড়াকার আবু সালেহ, প্রয়াত চাষী নজরুলের সহধর্মিনী জ্যোৎস্না কাজী, জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) সভাপতি এম এ মালেক, জিয়া সাংস্কৃতকি সংগঠন (জিসাস) আবুল হাশেম রানা, জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। এ ছাড়া কণ্ঠশিল্পী হাসান চৌধুরী, চিত্রনায়ক হেলাল খান, প্রয়াত চিত্র নায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী মান্না, চিত্র পরিচালক নাসিরউদ্দিন মিলনও অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।
ফখরুল বলেন, সংগ্রামের মাধ্যমেই আবারও তাদের অধিকারগুলো ফিরিয়ে আনবে, এটাই ইতিহাস। সে জন্য হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। নিঃসন্দেহে একদিন আমরা সফল হব। এদেশের মানুষ স্বাধীন চিন্তা ও মুক্ত বুদ্ধির পরিবেশ ফিরে পাবে।
মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে এক দুঃসময় চলছে। এখন স্বাধীন চিন্তা ও মুক্তবুদ্ধির চর্চার কোনো অবকাশ নেই। এখন কণ্ঠ রোধ করা হয়, চিন্তাকে বাঁধা দেওয়া হয়। মুক্তবুদ্ধির চর্চাকে পেছনে ফেলে দেওয়া হয়। ১৯৭১ সালের আগে থেকেই সুন্দর একটি বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছিলাম, তার জন্য একাত্তরে লড়াই করেছিলাম। কিন্তু আজকে আমাদের দুর্ভাগ্য, দীর্ঘদিন পরে এসে এখন শ্বাস বন্ধ হয়ে যায়, কণ্ঠ রুদ্ধ হয়ে যায়। যারা সত্য কথা বলতে চায়, ভিন্নমত পোষণ করতে চাই, তাদেরকে এখানে পুরোপুরিভাবে নির্যাতন-নিপীড়ন-দমনে শিকার করা হয়।
চাষী নজরুল ইসলামকে বিরল ব্যক্তিত্ব হিসেবে অভিহিত করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘অত্যন্ত বড়মাপের সৃজনশীল মানুষ ছিলেন তিনি। এই মহান সৃষ্টিশীল মানুষটিকে আমাদের বার বার স্মরণ করা উচিৎ। শুধু এটা স্মরণ করিয়ে দেওয়ার জন্য যে, আমরা হেরে যাইনি। আমরা মানুষের অধিকারের জন্য লড়াই করছি, করতে থাকব।’
মির্জা ফখরুল বলেন, চাষী ভাইকে এদেশের মানুষ দীর্ঘকাল মনে রাখবেন। তার সৃজনশীলতা যেন হারিয়ে যেতে বসেছে। যা আমজাদ ভাই (আমজাদ হোসেন), গাজী ভাই (গাজী মাজহারুল আনোয়ার) ও বলেছেন। আমাদের চলচ্চিত্র অঙ্গনে এখন যেন সৃষ্টিশীল মানুষ সামনেও আসতে পারছেন না। আমি আমজাদ ভাইকে জিজ্ঞাসা করছিলাম, ছবি বানাচ্ছেন। তিনি বললেন, অনেকদিন ছবি বানাই না। কারণ সেই পরিবেশ নেই।