Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছাটাই শ্রমিকদের পাওনার দাবিতে বিক্ষোভ, ধাওয়া পাল্টাধাওয়া আহত -১৫


গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাড়ইপাড়া এলাকায় হেসং বিডি লিমিটেডের ছাটাইকৃত শ্রমিকরা আইনানুগ পাওনাদির দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট, বিক্ষোভ করেছে। এক পর্যায়ে কারখানা শ্রমিক ও ছাটাইকৃত শ্রমিকদের মধ্যে মারামারি, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হয়। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

জাতীয় গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সদস্য অরবিন্দ বেপারী জানান, কারখানা কর্তৃপক্ষ গত এপ্রিল মাসে নিয়ম অনুযায়ী পাওনাদি পরিশোধ না করে ২১৮ জন শ্রমিককে ছাটাই করে। পরে শ্রমিকদের পাওনা পরিশেধের একাধিক তারিখ দিলেও কর্তৃপক্ষ পাওনা পরিশোধ করে নি। এ নিয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ ও বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দ এবং কলকারখানা কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক হয়। বৈঠকে নিদ্ধান্ত হয় ১৩ আগষ্ট কারখানা কর্তৃপক্ষ কলকারখানা অধিদপ্তরে গিয়ে শ্রমিকদের পাওনাদি পরিশোধ করবেন। কিন্ত কারখানা কর্তৃপক্ষ সেখানে হাজির হয়নি বা পাওনাও পরিশোধ করে নি। বুধবার শ্রমিকরা সকাল ১১টার দিকে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করলে বহিরাগত মান্তান দিয়ে অতর্কিতে তাদের উপর হামলা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। এতে তাদের সংঘঠনের ৭ নেতাসহ ১৫ জন আহত হয়। এ সময় পুলিশ ৩ হামলাকারীকে আটক করেছে।

শিল্প পুলিশের ওসি মো: শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ছাটইকৃত শ্রমিকরা সকাল থেকে বকেয়া পাওনার জন্য কারখানা গেটে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এসময় তারা কারখানার সামনে ঝাড়– নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে। দুপুর খাবারের বিরতির সময় করখানার ভেতরের শ্রমিকরা বের হতে গেলে ছাটাইকৃত শ্রমিকদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মারামারি ও ধাওয়া-পল্টাধাওয়া শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। আগামী ৩০ আগষ্ট তাদের পাওনাদি পরিশোধ করা হবে এ মর্মে নোটিশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তা নাজমুল আলম জানান, আগামী ৩০ আগষ্টের মধ্যে তাদের পাওনাদি পরিশোধ করার নোটিশ দেয়া হয়েছে। কিন্ত তারা না মেনে বিক্ষোভ শুরু করে। শ্রমিকরা দুপুরে খাবেরর বিরতির সময় বের হতে গেলে ধর্মঘটকারীরা বাধা দেয়। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি, মারামারি, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে তাদের ৫ জন স্টাফ আহত হয়েছে।