Pages

Categories

Search

আজ- সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গোবিন্দগঞ্জের প্রবাসী শাহারুলকে ইরাকে হত্যা এলাকায় শোকের মাতম

শাহ আলম সরকার সাজু, গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধারা গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার এক প্রবাশীকে ইরাকে হত্যা করা হয়েছে বলে পরিবারের অভিযোগ। এ ঘটনায় চলছে এলাকায় শোকের মাতম।
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের উলিপুর আগপাড়া গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদের পুত্র শাহারুল ইসলাম (৩৫) সংসারের অভাব অনাটন মেটাতে ২০১৬ সালে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের মৃত-ময়েন উদ্দিন সরকারের পুত্র আদম ব্যবসায়ী বুলেটের মাধ্যমে গলাকাটা পাসর্পোট নিয়ে বাংলাদেশ থেকে ইরাকে যায়। ওই দেশে যাওয়ার পর একটি মাইক্রোবাসের গ্যারেজে কাজ করতো শাহারুল। ঘটনার বেশ কয়েক দিন আগে দালালেরা তাকে ওই স্থান থেকে অন্যত্র বিক্রি করে দেয় বলে শাহারুল তার পরিবারকে জানায়। গত রবিবার সামাজিক যোগাযোগ ফেশবুক ইমুতে শাহারুলের গলায় রশি দিয়ে ঝুলানো অবস্থায় একটি ছবি পাঠায় এবং মোবাইল ফোনে তার পরিবারকে আতœহত্যা করার কথা বলা হয়েছে।
শাহারুলের স্ত্রী কহিনুর বেগম জানান, সর্বশেষ গত শুক্রবার স্বামীর সাথে শেষ কথা হয় তার। তিনি বলেছেন, আমাকে ওরা বাঁচতে দিবে না, মেরে ফেলবে। যারা টাকা পাবে তাদেরকে টাকা দিতে বলেছে। একই কথা বলেন, শাহারুলের বাবা আব্দুল ওয়াহেদ। তিনি ছেলেকে বলে ছিলেন ওই খান থেকে পালাতে। কিন্তু শাহারুল বলেছে বাবা ওরা আমাকে বের হতে দেয় না। এ সব কথা বলতে যেয়ে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন স্ত্রী, মা, বাবাসহ আতœীয়স্বজনেরা। এতে ওই এলাকার আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে আসছে। ৩ ভাই, ১ বোনের মধ্যে সে মেঝ সন্তান বলে তার বাবা জানান। ছোট বেলা থেকেই মানুষের কল্যানে কাজ করে যেত। শাহারুলের স্ত্রীসহ ৩ ছেলে সন্তানের এখন কি হবে। এটাই এলাকাবাসী মুখে মুখে। অসহায় পরিবারের আকুতি তারা এখন লাশটি চায়। তাই সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিকট দাবী করেছেন লাশটি দেশে নিয়ে আসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের। সেই সাথে যারা তাকে হত্যা করে আতœহত্যা বলে অপপ্রচার করছে ওই দেশে বাংলাদেশের দূর্তাবাসের সাথে কথা বলে তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করেছে তার পরিবার।