Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ঘোষিত ইসতেহারে হাসান উদ্দিন সরকারের আধুনিক পরিচ্ছন্ন ও দুর্নীতিমুক্ত নগরী গঠনের অঙ্গীকার

মঞ্জুর হোসেন মিলন : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে ২০ দলীয় জোট প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ হাসান উদ্দিন সরকার আজ বৃহস্পতিবার সকালে টঙ্গীস্থ তাঁর নিজ বাস ভবনে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে গাজীপুর সিটিকে অত্যাধুনিক পরিচ্ছন্ন ও দুর্নীতিমুক্ত সিটি গড়ার অঙ্গীকার নির্বাচনী ইসতেহার ঘোষণা করেছেন।
ইসতেহারে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জননিরাপত্তা, যানজট নিরসন, জলাবদ্ধতা দূরীকরণ, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ, যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়ন, পরিবেশ সুরক্ষা বৃক্ষরোপন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, নাগরিকদের ফ্রি ইন্টারনেট, সুপেয় পানি, স্বাস্থ্যসম্মত সেনিটারী ব্যবস্থা, দুর্নীতিমুক্ত স্বচ্ছ কার্যক্রম, গার্মেন্টস্ শ্রমিকদের জন্য স্বল্পমূল্যে আবাসন ব্যবস্থা, ক্রীড়া, সংস্কৃতি, বিনোদন, আধুনিক প্রেসক্লাব, মুক্তমঞ্চ ও নগর ভবন নির্মাণ, বিশ^ ইস্তেমায় আগত মুসল্লীদের সুযোগ সুবিধা দানসহ ১৯ দফা ইস্তেহার প্রকাশ করা হয়।
শিক্ষাবন্ধু হিসেবে পরিচিত আলহাজ¦ হাসান উদ্দিন সরকার শিক্ষা ও শিক্ষকদের সর্বোচ্চ সম্মান ও গুরুত্ব দিয়ে সিটি কর্পোরেশনের সীমানার অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সিটি কর্পোরেশনের আওতায় সম্পৃক্ত করে উন্নত শিক্ষা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রæতি দেন। উল্লেখ্য যে, দেশের একমাত্র চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনেই এ ব্যবস্থা চালু আছে।

মৌলিক চাহিদার অন্যতম চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবাকে গুরুত্ব দিয়ে নগর স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপন, বস্তিবাসী ও ভাসমান লোকদের জন্য সুলভ স্বাস্থ্যসেবা, ফরমালিনমুক্ত খাদ্য ও নিরাপদ বাজার ব্যবস্থাপনা, মশা নিধনে নিয়মিত পরিচ্ছন্ন অভিযান, ও স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য স্বল্প মূল্যের আবাসন করার ও প্রতিশ্রæতি দেন।
গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন, কমিউনিটি পুলিশ ও নৈশ প্রহরী নিয়োগ করে জননিরাপত্তাদান, শ্রমিক মালিক অধিকার অক্ষুন্ন রেখে শ্রমিকের যথাযথ অধিকার নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করবেন।
পরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন করে যাতায়াতের পথ সুগম করা ও সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে যানজট নিরসন, বর্জ্য রিসাইক্লিং করে বিদ্যুৎ ও সার তৈরী, বৃক্ষায়ন ও শব্দ দূষণ রোধ করে পরিবেশ বান্ধব নগরী গড়ে তোলার প্রতিশ্রæতি দেন।
বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে জলাবদ্ধতা দূর করে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে পাবলিক টয়লেট ও খাবার পানির ব্যবস্থা, কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে আবাসিক এলাকায় বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ, রাস্তায় পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা ও সৌর বিদ্যুৎ ব্যাবহারে উদ্বুদ্ধ করার প্রতিশ্রæতি প্রদান করেন।
প্রতিটি জোনে পর্যায়ক্রমিক ভাবে স্বাস্থ্য উপযোগী ক্রীড়া কেন্দ্র, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, গণপাঠাগার স্থাপন, নাগরিকদের অনলাইন সার্ভিস দ্রæত করে সেবা নিশ্চিত করা হবে বলে তিনি জানান।
বিশ^ ইস্তেমা এই মহানগরে অনুষ্ঠিত হয় বিধায় তাতে আগত মুসল্লীদের জন্য সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতের ও প্রতিশ্রæতি দেন।
এ কার্যক্রমগুলো তিনি গুরুত্ব বুঝে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নাগরিক সুশীল কমিটি গঠনের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করবেন বলে জানান। নির্বাচন পরিচালনা মিডিয়া সেলের প্রধান ও বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ডা. মাজহারুল আলম জানান, এটি একটি ঐতিহাসিক ইস্তেহার। এটি বাস্থবায়ন হলে গাজীপুর মহানগরী একটি উন্নত মডেল, জনগণের বাসউপযোগী স্বাস্থ্য সম্মত, পরিবেশ বান্ধব নগরীর উদাহরণ সৃষ্টি হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহŸায়ক একেএম ফজলুল হক মিলন, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দস তালুকদার দুলু, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির খান, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যসচিব ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়্যেদুল আলম বাবুল, নির্বাহী সদস্য এমএ মতিন, বাবুল আক্তার, উলামা দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাওলানা পীরজাদা রুহুল আমিন। ২০ দলীয় জোটের শরিক দলের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী খায়রুল আলম, জাগপার মহানগরীর সভাপতি প্রিন্সিপাল হুমায়ুন কবির, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম জেলা সভাপতি মুফতী নাসির উদ্দিন, লেবার পার্টির মহানগরীর সভাপতি আহসান হাবীব ইমরুজ, জেলা যুগ্ম সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সবুজ, পেশাজীবী জেলা সভাপতি অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, এম-এইচ রহমান হাফিজ, ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আমীন আকন্দ, প্রভাষক বসীর উদ্দিন, এড. কামরুজ্জামান, মাহবুবুল আলম শুক্কুর, রাজু মাস্টার, যুবদল নেতা রাশেদুল আলম কিরণ প্রমুখ ।