Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গাজীপুর শহরের হাসপাতাল সড়কে রোগী ও পথচারীদের দুর্ভোগ

ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮
গাজীপুর মহানগর, জনদুর্ভোগ, শীর্ষ সংবাদ
No Comment

মঞ্জুর হোসেন মিলন : গাজীপুর নগরের উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ থেমে থাকায় জনদুর্ভোগ বাড়ছে। নগরের কেন্দ্রবিন্দু গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ‘শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সড়ক’র সংস্কারবিহীন পরে আছে দীর্ঘ দিন যাবৎ। সড়কের গর্তের পানি ও হাসপাতালের পয়োনিস্কাশন ড্রেনের নোংরা পানিতে পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে। ময়লা পানি মারিয়েই চলতে হয় হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগী ও এসড়কে চলাচলকারী মানুষদের। আর বৃষ্টি হলে সড়কে জমে থাকে হাটু পানি। এ জন্য এ সড়কে চলাচলকারীদের ভোগান্তির অন্ত: থাকে না।
সড়কটি গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে হাসপাতালের সামনে দিয়ে পূবাইল পর্যন্ত। দৈর্ঘ্য আনুমানিক আট কিলোমিটার। দীর্ঘদিন যাবৎ হাসপাতালের পয়নিষ্কাশন ময়লা এই সড়কে গড়ানোর কারণে জনস্বাস্থ্য বিঘিœত হচ্ছে। আবার এই শুস্ক মৌসুমেও সড়কে অল্প বৃষ্টিতে পানি জমে থাকে। রাস্তার দু’পাশের দোকানদাররা জানান, বৃষ্টি হলে কাদাপানি আর শুস্ক মৌসুমে ধুলায় একাকার। ফলে হাসপাতালের রোগী, রাস্তায় চলাচলকারীরা পথচারীরার শিকার হচ্ছেন ভোগান্তির। সড়কের উপর ব্রীজ পূণ:নির্মাণ শেষে উদ্বোধন করা হয়েছে দুই বছর আগে। ব্রীজের দুই পাশে সড়কের বেহালাবস্থায় জনদুর্ভোগ।


ভূক্তভোগীরা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশন হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত সড়কটির সংস্কার কাজ হয়নি। অনেক আগেই এ সড়কের কার্পেটিং ওঠে গেছে, খানা-খন্দে ভরা। এলাকার বাসা-বাড়ির মানুষের গোসলের পানিতেই পাশের ড্রেন উপচে ময়লা পানি রাস্তায় ওঠে। বর্ষা মৌসুমে সড়কটি থাকে পানিতে ডুবে। এসব কারণে এ সড়ক দিয়ে রিকশাও যেতে চায় না। এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সড়কটিতে খোয়া ফেলে কিছুটা চলাচলের উপযোগি করা হয়েছে।
হাসপাতালের সামনের ওষধ দোকান সাদমান ফার্মাসী মালিক সৈয়দ হুমায়ুন কবির বলেন, তিন বছর ধরে রাস্তার বেহাল অবস্থা। রাস্তা দিয়ে হাঁটা যায় না। মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে সংস্কার করা প্রয়োজন।
জামালপুরের আতিক মিয়া গাজীপুর শহরের রধখোলা এলাকায় ভাড়া থেকে রিকশা চালায়। তার সঙ্গে কথা হয় ভাঙ্গা সড়কের পাশে। তিনি জানান, বৃষ্টির সময় এ সড়কটি দিয়ে যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে কষ্ট হয়।
গাজীপুর সিটি করপোরেশনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো: আকবর হোসেন জানান, হাসপাতালের সামনে দিয়ে ড্রেনের কাজ চলছে, এই সড়কের টেন্ডার ও ওয়ার্ক অর্ডার হয়ে গেছে। ঠিকাদারের গাফেলতিতে কাজটি দেরী হচ্ছে, দ্রæতই কাজ শুরু হবে।