Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮

গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে নেটওয়ার্কিং সমস্যা, ভোগান্তিতে পর্যটক ও স্টাফরা

সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭
অনিয়ম, শ্রীপুর
No Comment

, গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে মোবাইল ফোন তথা ইন্টারনেট চালানোর মতো নেই পর্যাপ্ত নেটওয়ার্কিং ব্যবস্থা। এতে প্রয়োজনের সময় পর্যটকরা এবং পার্ক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের স্বজন ও নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতে পারেন না। ফলে পার্কে অবস্থানরতদের প্রতিনিয়তই বিড়ম্বনা ও ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

ঈদের দুইদিন পর মঙ্গলবার সকালে নারায়নগঞ্জ থেকে সাফারি পার্কে বেড়াতে গিয়ে এমন ভোগান্তির কথা জানালেন মো. আবু জাফর সরকার। তারা দুই পরিবারের ৮জন সদস্য পার্কে গিয়ে দুইভাগে পড়েন। একভাগের পাঁচজন যান কোর সাফারি পার্কে বাঘ-সিংহ দেখতে অপরভাগে তিনজন পাশের বেষ্টনীতে ম্যাকাউ পাখি দেখার কথা বলে পশ্চিমে প্রায় দেড় কিলোমিটার হেটে চলে যান ক্রাউন ফিজেন্ট এভিয়ারিতে (সাদা-নীল ময়ুর পাখি দেখতে)। মোবাইল ফোনে নেটওয়ার্ক না থাকায় একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন তারা। পরে বিভিন্ন বেষ্টনীর পশু-পাখি দেখার পর পার্কের মূল ফটকে প্রায় এক ঘন্টা অপেক্ষা করে তাদের দেখা মিলে।

একইদিন কিশোরগঞ্জ থেকে আগত পর্যটক সামশুল আলম বললেন, পার্কে নেটওয়ার্ক কোন নেটওয়ার্ক নেই আগে জানা ছিল না। বিশেষ প্রয়োজনে সেখান থেকে গ্রামের বাড়িতে মায়ের সাথে যোগাযোগ করতে পারি নাই। পরে পার্ক থেকে বের হয়ে কয়েক কিলোমিটার দুরে গিয়ে কথা বলে আবার পার্কে আসতে হয়েছে। এ এক বড় রকমের বিড়ম্বনা।

পার্কের ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মো. সরোয়ার হোসেন খান বলেন, পার্কে ওয়্যারলেস সেট এবং মোবাইল ফোনে নেটওয়ার্ক না থাকায় নিজেদের মধ্যেও যোগাযোগ রক্ষা করা সম্ভব হয়না। এছাড়া ইন্টারনেট (ব্রডব্যান্ড লাইন) না থাকায় বাইরে কোন ই-মেইলেও যোগাযোগ করা যায়না। এটা যেন বিচ্ছন্ন একটা জনপথ।

পার্কের প্রকল্প কর্মকর্তা মো. সামসুল আজম জানান, রেডিয়েশন হওয়ার আশঙ্কায় পার্কের ভেতরে নেটওয়ার্কিং টাওয়ার স্থাপন করা সম্ভব নয়। তবে পার্কের বাইরে নিরাপদ দূরত্বে কোন কোম্পানীর টাওয়ার স্থাপন করা যেতে পারে। এ সমস্যা সামধানে তিনি চেষ্টা করছেন। এজন্য তিনি আগ্রহী মোবাইল অপারেটর কোম্পানীগুলোকেও স্বাগত জানিয়েছেন।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহাবুদ্দিন জানান, ব্রডব্যান্ড লাইন ও ওয়াইফাই কানেশন দিয়েও সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।