Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮

গাজীপুরে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, শ্বামী ও সতীন পলাতক

স্টাফ রিপোর্টার: গাজীপুরে শুক্রবার এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে নিহত ওই নারীর শ্বামী ও সতীন পলাতক রয়েছে। এক সন্তানের জননী ওই নিহতের নাম ইয়াসমিন আক্তার সাথী (২২)। সে গাজীপুর জেলা শহরের মুন্সিপাড়া এলাকার লিটন মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ ও এলাকাবাসি জানায়, গাজীপুর মহানগরের চান্দনা গ্রামের আব্দুল মোতালেবের বাড়ির একই ঘরে আল আমিন তার দু’স্ত্রী সাবিনা আক্তার ও সাথীকে নিয়ে ভাড়া থাকে। দু’সতীনের মধ্যে আল আমিনের প্রথম স্ত্রী সাবিনা  এবং সাথী দ্বিতীয় স্ত্রী। পারিবারিক সমস্যা নিয়েবৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। শুক্রবার ভোররাতে সেহরী খাওয়ার সময় তাদের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ন্থানীয়রা ঘুম থেকে জাগিয়ে তোলার জন্য আল আমিনের ঘরে গিয়ে সাথীর লাশ মেঝেতে দেখতে পায়। তবে ঘটনার পর থেকে গার্মেন্টস কর্মী আল আমিন ও তার প্রথম স্ত্রী সাবিনাকে খুঁজে পায়নি এলাকাবাসি। খবর পেয়ে সকালে জয়দেবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

জয়দেবপুর থানার এসআই আজিজুল ইসলাম জানান, নিহতের গলায় কালো দাগ রয়েছে ও লাশের পাশে ওড়নার কেটে ফেলা অর্ধেকাংশ পড়ে ছিল। ওড়নার বাকী অংশ ঘরের আড়ের সঙ্গে ঝুলে রয়েছে। ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তবে ধারনা করা হচ্ছে, রাতে ঘরের আড়ের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে সাথী। পরে ওড়না কেটে ঝুলন্ত লাশ মেঝেতে নামানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের শ্বামী আল আমিন ও সতীন সাবিনা পলাতক রয়েছে। এদের মধ্যে আল আমিনের বাড়ি শেরপুরের নালিতা বাড়ি ও সাবিনার বাড়ি ফরিদপুরে বলে জানা গেছে।