Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গাজীপুরে অপহরণের পর হত্যা : বিচার দাবীতে পরিবারের সংবাদ সন্মেলন

?

?

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট: গাজীপুর মহানগরের বাঘিয়া এলাকার এমারত মোল্লাকে অপহরন করে হত্যার বিচার দাবী করে পরিবার সংবাদ সন্মেলন করেছে। আজ ১৯ অক্টোবর বুধবার দুপুরে কোনাবাড়িতে স্থানিয় সাংবাদিকদের অফিসে মামলার বাদী ও পরিবারের সদস্যরা হত্যাকারীদের বিচার দাবী করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ৬ আগষ্ট বিকেলে বাঘিয়া গ্রামের ছাহের মোল্লার পুত্র এমারত মোল্লাকে প্রতিবেশী রতন মোল্লা ও ফরিদ মোল্লা বাড়ি থেকে ঢেকে নেয়। এরপর এমারত মোল্লার মোবাইল ফোন বন্ধ পায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে রতন মোল্লা ও ফরিদ মোল্লাকে সন্দেহ করে আটক করে জয়দেবপুর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করে। অপহরণের একমাস পর এমারত মোল্লার লাশ আশুলিয়া থানার টঙ্গাবাড়ি এলাকার জলাশয় থেকে পুলিশ উদ্ধার করে। আশুলিয়া থানার উপ পরিদর্শক হাবিব জানান, লাশ উদ্ধারের পর একটি অপমৃত্যু মামলা নিয়ে লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠাই। পরে লাশ সনাক্ত করলে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করি। এবিষয়ে হত্যার শিকার এমারত মোল্লার ভাই সেলিম মোল্লা বাদী হয়ে চার জনকে আসামী করে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। এঘটনায় পুলিশ প্রতিবেশী মো: রতন মোল্লা, মো: ফরিদ মোল্লা ও মো: আদিল হোসেনকে গ্রেফতার করে। মামলার তদন্ত তদারক কর্মকতা কোনাবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ পরিদর্শক মো: রফিকুল ইসলাম গাজীপুর দর্পণকে জানান, মামলার তিন আসামী গ্রেফতার হয়েছে। বাকী আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তদন্ত শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।
সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন হত্যার শিকার এমারত মোল্লার মা রাজিয়া খাতুন, বাবা ছাহের মোল্লা, স্ত্রী কাজল আক্তার, মেয়ে এশা মনি, বোন ফাহিমা বেগম, শ্বশুর হারুন অর রশিদ ও মামলার বাদী ছোট ভাই মো: সেলিম মোল্লা সহ পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়রা। সংবাদ সন্মেলনে বিচার দাবী করে বলেন, ঘটনার মূল হোতা মো: সুজন মিয়া সহ অন্য সহযোগী আসামীদের গ্রেফতার করে বিচার নিশ্চিত করতে হবে।