Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গফরগাঁওয়ের কালদাইড় গ্রামে সেতুর অভাবে লাখো মানুষের দূর্ভোগ

জানুয়ারি, ২৩, ২০১৮
জনদুর্ভোগ, ময়মনসিংহ
No Comment

এমদাদুল হক : স্বাধীনতার পর থেকে সবকটি নির্বাচনে এই গ্রামের শতকরা পঁচানব্বই ভাগ ভোট পেয়ে নৌকা প্রতিক বিজয়ী হলেও বঙ্গবন্ধু প্রেমী ও  প্রধানমন্ত্রীর অনুসারী কয়েক হাজার লোকজনের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়নি এখনও। আশার আলো শুনতে শুনতে দিন অতিবাহিত হচ্ছে তাদের। গ্রামে নেই কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ব্রিজ, কালভার্ট। সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থাও গড়ে উঠেনি। এই গ্রামে সভ্যতার আলো না পৌছানোই নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা নিয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে কয়েক হাজার লোকের।

মাখল কালদাইড় নামের এমন একটি কৃষি প্রধান গ্রামের অবস্থান ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানায় নিগুয়ারী ইউনিয়নে।যেখানে যোগাযোগ ব্যবস্থার আশাতিত উন্নয়ন না হওয়ায় কৃষি নির্ভর পরিবারগুলো কৃষিপন্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না। আবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় অকালে ঝড়ে যাচ্ছে অনেকেই। নদী খাল বিলে ঘেরা এই গ্রামটির দৈর্ঘ্য প্রায় পাঁচ কিলোমিটার। গ্রামের এক পাশ দিয়ে বয়ে গেছে শিলা নদী। গ্রামে ডুকতেই পরে খরহতি খাল। কিন্তু এই খালে ব্রীজ না থাকায় ঐতিহাসিক কাল থেকে গ্রামের লোকজনের একমাত্র ভরসা বাঁশের সাঁকো।
মাখল কালদাইড় গ্রামের কৃষক জহুর আলী আক্ষেপের সাথে জানান, আমাদের এলাকার কয়েকহাজার লোকজন কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন কিন্তু রাস্তাঘাটের উন্নতি না হওয়ায় কৃষিপন্য পরিবহনের কোন ব্যবস্থা নেই। তাই আমরা ন্যায্যমূল্য পাচ্ছি না।
গৃহবধু রহিমা খাতুন জানান, আমরা জন্ম থেকেই এমন অবস্থায় আছি। আমাদের অবস্থা এতই শোচনীয় যে অনেকে বিবাহের সম্পর্ক করতে এই এলাকায় আসে না।
বয়স আশির উপরে আব্দুল মান্নান আক্ষেপ করে জানান, আমরা শেখ সাহেবকে ভালবাসতাম, তার মেয়েকে ভোট দিয়ে যাচ্ছি কিন্তু দীর্ঘদিনেও আমাদের এলাকার উন্নয়নে কেও এগিয়ে আসেনি।
স্কুল শিক্ষক বীরমুক্তিযোদ্ধা গিয়াসউদ্দিন জানান, এই এলাকার প্রায় পাঁচ হাজার জনবসতি থাকলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বলে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বাহিরে শিক্ষাগ্রহনে শিক্ষার্থীদের প্রায় ১০ কিলোমিটার পথ যেতে হয় পায়ে হেটে। এতে অনেক ছেলে মেয়ে প্রাথমিক শিক্ষার পরেই ঝড়ে পড়ছে।
স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হামিদ জানান, খরহতি খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হলেই এলাকায় আমূল পরিবর্তন আসবে। আমরা সরকারের নিকট দ্রুত একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবী জানাই।

নিগুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ড সদস্য মকবুল হোসেন জানান, এবিষয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সাথে কথা হয়েছে। শীঘ্রই এলাকার লোকজনের দূর্ভোগ লাগবে খরহতি খালের উপর একটি সেতু নির্মাণ করা হবে।