Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কালিয়াকৈরে হোটেলগুলোর খাবারে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে জনগণ

মনির হোসেন জীবন, কালিয়াকৈর : গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাজার বাসস্ট্যান্ড ও আশপাশের এলাকার বিভিন্ন খাবার হোটেলগুলোর বাইরে ফিটফাট ভিতরে সদরঘাট অবস্থা। আর এর ফলে চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে সাধারণ জনগণ। সঠিক তদারকির অভাবের ফলে এরকম অবস্থার সৃষ্টি দাবি সাধারণ জনগণের।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বেশিরভাগ খাবার হোটেলগুলো খাবার তৈরি ও পরিবেশন করছে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে। ভেজাল বিষাক্ত তেল, পচা-বাসি খাবার, নোংরা, গন্ধযুক্ত খাবার পরিবেশন করা হচ্ছে খাবার হোটেলগুলোতে। আর এতে করে সাধারণ মানুষ বদহজম, পেটের পীড়া, ডায়রিয়াসহ নানান জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

সরকারি বিধি নিষেধ না মেনেই অবাধে এসব নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে হোটেল মালিকরা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে নির্ভয়ে। আর এসব অভিযোগের তীর প্রশাসনের দিকেই ছুড়ছে সাধারণ জনগণ। প্রশাসনের সঠিক তদারকির অভাবেই এমন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে অবাধে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এসব খাবার হোটেল মালিকরা বলে অভিযোগ করেছে সাধারণ জনগণ।

খাবার হোটেল-রেস্তোরা ও মিষ্টির দোকানগুলো ঘুরে দেখা গেছে, হোটেল কিংবা দোকানের চেয়ে একটু দূরে লোকচক্ষুর আড়ালে খাবার তৈরী, উৎপাদন এবং রান্না-বান্নার কাজগুলো সম্পাদন করা হচ্ছে। আর এসব উৎপাদন তৈরির জায়গা একেবারে নোংরা, সেঁতসেঁতে ও অস্বাস্থ্যকর। অনেকে খালি হাতেই ময়দা মাখা থেকে শুরু করে যাবতীয় কাজগুলো সেরে ফেলছেন। অথচ খালি হাতে কোন খাবার তৈরি করলে ওই খাবারে স্বাস্থ্যগত ক্ষতি সাধিত হওয়ার ঝুঁকি রয়েই যায়। হোটেলগুলোতে খোলা পাত্রে রাখা হচ্ছে খাবার। সেখানে অনবরত মাছি বসছে, নষ্ট হচ্ছে খাবার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উত্তরবঙ্গগামী এক মাইক্রোবাস চালক কালিয়াকৈর উপজেলার বাজ হিজলতলি এলাকার শিলা বৃষ্টি কমপেক্সের আদি চায়না হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, হোটেলটিতে গলাকেটে খাবারের দাম রাখা হচ্ছে। হোটেলটির পরিবেশ একেবারে অস্বাস্থ্যকর। লোকজনদের জিম্মি করে টাকা রাখার অভিযোগ রয়েছে।

সাধারণ মানুষের অভিযোগ ভ্রাম্যমান আদালত এবং স্যানেটারি ইন্সপেক্টরের কোন তদারকি না থাকার কারণেই এরকম নাজেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে এ ব্যাপারে স্যানেটারি ইন্সপেক্টরের সাথে যোগাযোগ করতে তার অফিসে গেলে অফিস তালাবদ্ধ পাওয়া যায়।