Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২১ নভেম্বর ২০১৮

কাপাসিয়া কলেজে সন্ত্রাসী হামলায় দুই ছাত্রলীগ নেতা আহত  কাপাসিয়া সংবাদদাতা গাজীপুরের কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বহিরাগত মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় ছাত্রলীগের দুই নেতা গুরুতর আহত হয়েছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ছানাউল্লাহ জানান, দুপুরের দিকে আমি অফিসে থাকাবস্থায় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাজমুল হাসান দর্জি ও থানা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক মোরাবক দৌড়ে আমার কক্ষে এসে আশ্রয় নেয়। এ সময় ১০/১২ জন মুখোশধারী সন্ত্রাসী লাঠি সোটা, দা, বল্লম, চাপাতি নিয়ে আমার অফিস কক্ষে ঢুকে তাদের উপর হামলা করে। এসময় তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে উল্লেখিতরা গুরুতর রক্তাক্ত যখম হয়। আমি অনেক চেষ্টা করেও সন্ত্রাসীদের ফিরাতে পারিনি। এ সময় হামলাকারীরা আমার অফিসের ফোনের লাইন কেটে দেয় এবং আসবাবপত্র তছনছ করে। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি আমার অফিস কক্ষের বাইরে এসে ডাক চিৎকার দিলে কলেজের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। এ ঘটনার পর কলেজ ছুটি ঘোষণা করা হয়। এ ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি আহতদের দেখতে হাসপতালে ছুটে যান। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের ঢাকা পঙ্গ হাসপাতালে রেফার্ড করলে তাদের সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হামলার প্রতিবাদে শহরে ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৩
কাপাসিয়া, রাজনীতি
No Comment

 কাপাসিয়া সংবাদদাতা
গাজীপুরের কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বহিরাগত মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় ছাত্রলীগের দুই নেতা গুরুতর আহত হয়েছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ছানাউল্লাহ জানান, দুপুরের দিকে আমি অফিসে থাকাবস্থায় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাজমুল হাসান দর্জি ও থানা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক মোরাবক দৌড়ে আমার কক্ষে এসে আশ্রয় নেয়। এ সময় ১০/১২ জন মুখোশধারী সন্ত্রাসী লাঠি সোটা, দা, বল্লম, চাপাতি নিয়ে আমার অফিস কক্ষে ঢুকে তাদের উপর হামলা করে। এসময় তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে উল্লেখিতরা গুরুতর রক্তাক্ত যখম হয়। আমি অনেক চেষ্টা করেও সন্ত্রাসীদের ফিরাতে পারিনি। এ সময় হামলাকারীরা আমার অফিসের ফোনের লাইন কেটে দেয় এবং আসবাবপত্র তছনছ করে। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি আমার অফিস কক্ষের বাইরে এসে ডাক চিৎকার দিলে কলেজের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। এ ঘটনার পর কলেজ ছুটি ঘোষণা করা হয়।
এ ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি আহতদের দেখতে হাসপতালে ছুটে যান। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের ঢাকা পঙ্গ হাসপাতালে রেফার্ড করলে তাদের সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হামলার প্রতিবাদে শহরে ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল করেছে।