Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ২১ নভেম্বর ২০১৮

কাপাসিয়ায় মা‘র পরকিয়া দেখে ফেলায় মেয়েকে গলাটিপে হত্যা

মার্চ ৩০, ২০১৬
কাপাসিয়া, শীর্ষ সংবাদ, হত্যা
No Comment

Hotta_newsnextbd1কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি:

মায়ের পরকিয়া দেখে ফেলায় জান্নাতুল ফেরদৌস (১৩) নামে এক ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে মা নিজেই গলা টিপে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার গাজীপুরের কাপাসিয়ার নরসিংহপুর গ্রামে। ঘটনার পর মা ফাতেমা পালিয়ে যাবার সময় এলাকাবাসি আটক করে গণপিটুনি দিয়েছে। নিহত জান্নাতুল ফেরদৌস নরসিংহপুর জনাব আলী দাখিল মাদরাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ও প্রবাসি হারুন অর রশিদ চানুর একমাত্র মেয়ে। ঘটনাটি ধামাচাপা ও গোপন রাখতে প্রভাবশালী মহল ঘটনার পর থেকে দিনব্যাপী চেষ্টা তদবির করছে বলে এলাকাবাসী জানায়।

নিহতের চাচা কাজল মিয়া বলেন, আমার ছোটভাই হারুন অর রশিদ চানু দীর্ঘদিন যাবত বিদেশে সৌদি আরব প্রবাসি থাকায় তার স্ত্রী ফাতেমা আক্তার (৩৫) উল্টা-পাল্টা চলাফেরা করে আসছে। তার এহেন কার্যকলাপে আমরা বাড়ির সকলেই বাধা দিয়ে আসতে থাকি। কিন্তু আমাদের কোনো কথাই সে শুনতে নারাজ। আর ফাতেমার পরকিয়া তারই কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌস দেখে প্রায়ই প্রতিবাদ করে আসছে। এরই প্রেক্ষিতে ক্ষিপ্ত হয়ে মা ফাতেমা তার প্রেমিক একই গ্রামের ফাইজুদ্দিনকে সাথে নিয়ে সোমবার গভীর রাতে গলা টিপে হত্যা করে।

নিহতের চাচি বলেন, প্রায় রাতেই পাশের গ্রামের ফাইজুদ্দিন কিছুনা কিছু বায়না নিয়ে বাড়িতে আসতো।

নিহতের দাদি বলেন, আমার নাতি জান্নাত তার মায়ের অবৈধ সম্পর্কে বাধা দিতো। আর বাধাই তার জীবনের কাল হয়েছে। তার মা একটা ডাইনি। তার মা ও প্রেমিকরা মিলে আমার নাতিকে খুন করেছে।

এলাকাবাসীর একাধিক সূত্র জানায়, শুধু ফাইজুদ্দিন নয়, কাপাসিয়া থানার এসআই রাসেলসহ একাধিক ব্যক্তির সাথে পরকিয়ার সম্পর্ক রয়েছে। ঘটনার পর থেকে ফাইজউদ্দিন গা ঢাকা দিয়েছে। এস আই রাসেল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা। তবে রাসেল এর দাবী সে উড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর রকিবুল হক বলেন, আত্মহত্যার খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।