Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কাপাসিয়ায় নদীতে ঝাপ দেয়ার ২দিন পর ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

ডিসেম্বর ২, ২০১৩
কাপাসিয়া
No Comment

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট ঃ
গাজীপুরের কাপাসিয়ায় শ্বামী গোপনে বিয়ে করায় অভিমান করে শীতলক্ষ্যা নদীতে ঝাপিয়ে পড়ার ২দিন পর সোমবার দুপুরে গৃহবধু এক ছাত্রীর লাশ পানিতে ভেসে উঠার পর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। আত্মহননকারী ছাত্রীর নাম মোসাঃ শাহিনা আক্তার (২০)। সে কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত ছিল।
ছাত্রীর আত্মীয়রা জানান, পার্শ্ববর্তী নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার লেবু তলা গ্রামের হাজী সাইফুল ইসলামের মেয়ে শাহিনা  কাপাসিয়া কলেজ রোডে ভাড়া বাসায় থেকে কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষে অধ্যয়ন করছিল। গত ১৯ সেপ্টেম্ভর কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার কুরতলা গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে বিল্লাল হোসেনের (২৪) সাথে শাহিনার বিয়ে হয়। তারা উক্ত ভাড়া বাসায় থাকত। গত বুধবার উক্ত শ্বামী ঝগড়া করে বাসা থেকে চলে যায়। গত শুক্রবার শাহিনার শ্বামী গোপনে পারভীন নামে এক মহিলাকে বিয়ে করে। এ খবর জানতে পেরে শাহিনা শ্বামীর সাথে যোগাযোগ করা হলে শ্বামীর খারাপ আচরণের ক্ষুব্ধ হয়ে গত শনিবার বিকালে কাপাসিয়া শীতলক্ষ্যা নদীল উপর নির্মিত ফকির মজনু শাহ সেতু থেকে নদীতে ঝাপিয়ে পড়ে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সেতুর উপর পরিত্যাক্ত অবস্থায় এক জোড়া সেন্ডেল পায়। কিন্তু নদীতে তল্লাশি করার কোন উদ্যোগ নেয়নি পুলিশ। সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থলের ৩/৪শ মিটার ভাটিতে কাপাসিয়া থানার সামনে নদীতে লাশ ভেসে উঠে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করলে শাহিনার আত্মীয়রা লাশ সনাক্ত করে।
এব্যাপারে কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহসান উল্লাহ জানান, লাশ থানায় রাখা হয়েছে। ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে একটি মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।