Pages

Categories

Search

আজ- বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮

কক্সবাজারের পেকুয়ায় অস্ত্র ঠেকিয়ে সাড়ে ১২ লাখ টাকা লুট,আহত-৪

নভেম্বর ৭, ২০১৩
চট্রগ্রাম, দূনীতি
No Comment

পেকুয়া (কক্সবাজার)প্রতিনিধি ঃ
কক্সবাজারের পেকুয়ায় দিন দুপুরে অস্ত্র ঠেকিয়ে ৪ ব্যাক্তিকে জিম্মি করে নগদ সাড়ে ১২ লাখ টাকা লুট করেছে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। পরে টাকা দিতে ধস্তাদস্তি করায় ডাকাত দলের এলোপাতাড়ি ধারালে অস্ত্রের আঘাতে ওই ৪ ব্যাক্তি ঘটনাস্থলেই গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে আহত আব্দুল নবীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নে চরম উত্তেজনা চলছে। আহতদের পক্ষে তাদের গ্রামবাসীরা দুপুরে লাঠিসোটা নিয়ে ডাকাতদের এলাকা বদিউদ্দিন পাড়ায় অবস্থান নিলে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিরা টাকা ফেরত দিতে আশ্বাস্থ করলে উত্তেজিত লোকজন চলে যায়। এ রিপোর্ট লেখা পযার্ন্ত বৃহষ্পতিবার ৪ ব্যাক্তির লুটকৃত টাকার নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ডাকাতদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়ায় উক্ত টাকা বদি উদ্দিন পাড়ার জৈনক হাজ্বী বাদশাহর কাছে জমা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান। ঘটনাটি ঘটেছে ৭ অক্টোবর বৃহষ্পতিবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের চড়িপাড়া গরম মসজিদের সামনে। আহত ব্যাক্তিরা হলেন এ ইউনিয়নের বকশিয়াঘোনা এলাকার মৃত তজর আলীর পুত্র আব্দুল নবী, হাজ্বী আব্দু রশিদের পুত্র রোশান আলী, আব্দুল খালেকের পুত্র জহির উদ্দিন ও মৃত হাছান শরীফের পুত্র নওশা মিয়া। জানা যায়,ঘটনার দিন সকালে ওই ৪ ব্যাক্তি সহ ৬ জন তাদের ছেলেদের বিদেশ পাঠাতে ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে নিজ নিজ বাড়ি বকশিয়া ঘোনা থেকে  সাড়ে ১২ লাখ টাকা নিয়ে চকরিয়া ইসলামী ব্যাংকে যাচ্ছিলেন। পথি মধ্যে রাজাখালী দরবার সড়কের চড়িপাড়া গরম মসজিদের পাশে পৌঁছলে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা বদিউদ্দিন পাড়া গ্রামের দূর্ধর্ষ ডাকাত মনিরুজ্জামা (প্রকাশ মইন্য ডাকাত) আলম,এনাম,আন্টু সহ ৮/১০ জনের একদল ডাকাত তাদের পথ রোধ করে অস্ত্র ঠেকিয়ে র্সবশ্ব লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় তারা বাধা দিতে চেষ্টা করলে ডাকাত দল দিবালোকে প্রকাশ্যে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা দ্রূত পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা জানান এদের বিরোদ্ধে থানায় ডাকাতি,খুন,অস্ত্র মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। অনেকের বিরুদ্ধে একাধিক ওয়ারেন্টও রয়েছে। এ ব্যাপারে রাজাখালী ইউপির চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সিকদার বাবুল এর কাছে জানতে চাইলে এর সত্যতা শ্বীকার করেছেন। তিনি জানান, আমার ইউনিয়নে এ ডাকাতদের কারণে মানুষ জিম্মি রয়েছে। দিন দুপুরে এ ধরনের ডাকাতির ঘটনা দুঃখ জনক। ডাকাতির খবর পেয়েছি। শুনেছি লুট হওয়া কিছু টাকা জমা এক ব্যাক্তির কাছে জমা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে আমি ইউপি সদস্যদের নিয়ে পরিষদের জরুরী সভা আহবান করেছি। ডাকাতদের গ্রেফতারের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। পেকুয়া থানার ওসি মইন উদ্দিন আহমদ জানান এখনও কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে আহতদের পরিবার সুত্র জানিয়েছেন।