Pages

Categories

Search

আজ- বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

উখিয়ায় টমেটোর বাম্পার উৎপাদনের সম্ভাবনা

azad_pic_26,01,2014a[1]
শফিক আজাদ, উখিয়া প্রতিনিধি ঃ
উখিয়ায় টমেটোসহ শাক-সবজির উৎপাদন অন্যান্য বছরের তূলনায় ব্যাপক ভাবে বেড়েছে। কৃষকেরা হাটবাজারে স্থানীয় ভাবে উৎপাদিত সবজির ভাল দাম পাওয়ার সুবাধে কৃষি জমিতে এবার টমেটোর পাশাপাশি বিভিন্ন সবজি উৎপাদন করে আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে কৃষি স¤প্রসারণ অফিস সুত্রে জানা গেছে। সংশ্লিষ্ঠ কৃষকদের অভিমত চাষাবাদে পর্যাপ্ত সংমিশ্রিত সার প্রয়োগসহ আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সবজির বাম্পার উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে।
বিভিন্ন হাটবাজার ঘুরে স্থানীয় সবজি ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, দেশের উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় উৎপাদিত তরি-তরকারী সহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি এখানকার হাটবাজার গুলোতে বেচাকেনা হলেও স্থানীয় ভাবে  উৎপাদিত সবজির চাহিদা এখানে প্রচুর। তৎমধ্যে টমেটো অন্যতম। তাই কৃষকেরা মাঠের ধান ঘরে তোলার সাথে সাথে সবজি চাষাবাদের জন্য জমি তৈরী সম্পন্ন করে টমেটো চাষাবাদ শুরু করে। রাজাপালং ইউনিয়নের করইবনিয়া গ্রামের গয়ালমারা পাতাবাড়ী, জালিয়াপালং ইউনিয়নের উত্তর সোনার পাড়া রেজুখালের চর, এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মাঠের পর মাঠ সবুজের সমারোহ। তবে সবজি চাষাবাদের পাশাপাশি বেশির ভাগ জমিতে টমেটো চাষাবাদ করতে দেখা গেছে। বিভিন্ন শ্রেণীর পেশার মানুষ তাদের টমেটো চাষাবাদে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। উত্তর সোনারপাড়ার স্থানীয় কৃষক আলী আহমদ (৪০) নবি সোলতান (৪৩) জানান, ১২ মাস টমেটোর দাম বৃদ্ধি থাকায় এ উৎপাদিত টমেটোর চাহিদা ক্রেতাদের বেশি রয়েছে সে কারনে উৎপাদিত এ টমেটো বাজারে তোলা হলে ভাল দাম পাওয়া যাবে এতে কোন সন্দেহ নেই। স্থানীয় কৃষক রহিম আলী (৩২) কবির আহাম্মদ (৪৫) সালামত উল্লাহ (৫০) জানান, তারা বিগত কয়েক বছর ধরে আমন ও বোরো চাষাবাদ করে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।  কিন্তু গত বছর টমেটোসহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি বিক্রি করে আর্থিক লাভবান হয়েছে। তারা আরো জানান, আমন ও বোরো চাষাবাদে যে পরিমান অর্থ ব্যয় ও শ্রম দিতে হয় টমেটো বা অন্যান্য শাক-সবজি চাষাবাদে তেমন কোন খরচ  হয় না  পাশাপাশি আনুসাংঙ্গিক উপকরণ নিয়ে ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়না। এ কারনে অধিকাংশ কৃষক পতিত জমিতে এবার টমেটো সহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি চাষাবাদ করে আর্থিক ভাবে প্রচুর লাভ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
উপজেলা কৃষি স¤প্রসারণ অফিসার মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, আমনের ফলন কাটার পরপরই অর্থাৎ অক্টোবর মাসে সবজি চাষাবাদের লক্ষ্যে কৃষকেরা একই জমিতে টমেটো সহ বিভিন্ন শাক-সবজি চাষাবাদ করে থাকে।  চলতি মৌসুমে এ উপজেলার ৫ ইউনিয়নে প্রায় ২-৩ শত হেক্টর জমিতে টমেটো চাষাবাদ হয়েছে। এছাড়া  ও ২ থেকে আড়াই’শ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদিত এসব তরী-তরকারী ন্যায্য মূল্য পাওয়ার সুবাধে অনেকেই ইতিমধ্যে শুধুমাত্র শাক-সবজি চাষাবাদের মাধ্যমে শ্বাবলম্ভি হয়ে উঠতে দেখা গেছে।
স্থানীয় সুশীল ব্যক্তি নুর মোহাম্মদ সিকদার জানান, চলতি বছরের বোরো মৌসুমের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পানি সংকট, ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি, পল্লীবিদ্যুতের লোডশেডিং, কৃষি শ্রমিকের মজুরী বৃদ্ধি প্রভৃতি কারনে স্থানীয় অধিকাংশ বর্গা, প্রান্তিক, ক্ষদ্র ও মাঝারী চাষিরা এবার বোরো চাষ বাদ দিয়ে টমেটো সহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি চাষাবাদে ঝুকেছে।
উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মোস্তাক আহাম্মদ জানান, চলতি মৌসুমে টমেটো চাষাবাদে কৃষকেরা বিভিন্ন সার প্রয়োগ করার কারনে টমেটোর বাম্পার উৎপাদনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।