Pages

Categories

Search

আজ- শনিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৮

ইলেকশনে না আসলে বিএনপি খুঁজে পাবেন না ভবিষ্যতে – স্বাস্থ্য মন্ত্রী নাসিম

গাজীপুর দর্পণ রিপোর্ট : স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপি বন্ধুদের বলতে চাই, ইলেকশনে আসেন। ইলেকশনের না আসলে বিকল্প কিছু নাই কিন্তু। নির্বাচন ইনশাল্লাহ হবে, সংবিধান অনুযায়ী হবে, শেখ হাসিনার অধীনেই ইলেকশন হবে। আমেরিকায় যেভাবে ইলেকশন হয়, ইউরোপ যেভাবে ইলেকশন হয়, মালোয়শিয়া-ভারতে যেভাবে ইলেকশন হয়, সেভাবেই ইলেকশন হবে। ইলেকশনের বিকল্প কিছু হতে পারে না। ইলেকশনে আসেন। যদি ইলেকশনে না আসেন, বিএনপির বন্ধুদের বলে গেলাম-বাটি চালন দিলেও বিএনপি খুঁজে পাবেন না ভবিষ্যতে। তিনি বলেন, ফাউল করবেন না। ইলেকশন নিয়ে যদি কোন ফাউল করেন এবার বাংলার জনগণ লাল কার্ড দেখিয়ে দিবে।

শনিবার বিকালে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন নার্সিং কলেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আজকে দু:খ লাগে, যখন দেখি ড. কামাল হোসেন সাহেব, বঙ্গবন্ধু যাকে ¯েœহ করতেন-ভাল বাসতেন। একজন তরুণ ব্যারিষ্টার ছিলেন তিনি। তাকে ডেকে এনে আওয়ামী লীগের সদস্য বানিয়ে পরবর্তীকালে স্বাধীণ বাংলাদেশের পররাষ্ট মন্ত্রী বানিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় এমপি বানিয়েছিলেন তাঁর ছেড়ে দেয়া সিটে (আসনে)। দু:খ লাগে যখন দেখি সেই কামাল হোসেন বঙ্গবন্ধুর খুনীদের পক্ষ অবলম্বন করে আজকে বক্তব্য দিচ্ছেন। কষ্ট লাগে ড. কামাল হোসেন সাহেবকে দেখে। যখন দেখি- বিএনপি-জামাত জোট যারা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছে তাদের প্লাটফর্মে দাড়িয়ে তিনি বক্তব্য দেন।’

তিনি বলেন, ‘কামাল হোসেনকে- কামাল হোসেন বানিয়েছেন কে ? কামাল হোসেনকে- কামাল হোসেন আওয়ামীলীগ বানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু বানিয়েছে। আর তিনি আজকে বঙ্গবন্ধুর রক্তের সাথে বেইমানী করলেন। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, কেন আপনি বিএনপি-জামাতের প্লাটফর্মে দাড়িয়েছেন। কেন আপনি আত্মস্বীকৃত খুনীদের পৃষ্টপোষণকারী বিএনপি-জামাতের সাথে হাত মিলিয়েছেন।’

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমদ সোহেল তাজ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বদরুন নেছা, নার্সিং ও মিডওয়াইফারী অধিদপ্তরের মহাপরিচালক তন্দ্রা শিকদার, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এম এ মোহী, গাজীপুরের জেলা প্রসাশক ড. দেওয়ান মোহাম্মাদ হুমায়ূন কবীর, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুস সালাম সরকার প্রমুখ।